আজ আইপিএলের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মুখোমুখি সানরাইজার্স হায়দারাবাদ ও কিংস ইলেভেন পঞ্জাব। দুবাই ইন্টারন্য়াশানাল স্টেডিয়ামে মুখোমুখি দুই দল। এখনও পর্যন্ত আইপিএলের সেরা ফর্মে নেই কোনও দলই। একদিকে পাঁচটির মধ্যে মাত্র একটি ম্যাচ জিতে লিগ টেবিলের একেবারে নীচে রয়েছে কেএল রাহুলের দল। অপরদিকে, ৫টির মধ্যে মাত্র ২টি ম্যাচ জিতে লিগ টেবিলের ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে ডেভিড ওয়ার্নারের দল। তাই আজকের ম্য়াচ জিততে মরিয়া দুই দল। এদিন টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদ অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। বড় টার্গেট সেট করে বিপক্ষকে চাপে রাখতেই এই সিদ্ধান্ত হায়দরাবাদ অধিনায়কের। 

ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের এই ম্যাচে ধারে-ভারে কিছুটা এগিয়ে রয়েছে সানরাইজার্স দল। কারণ ব্যাটিং ললাইনআপের গভীরতা ও বোলিং শক্তি। যদিও ভুবনেশ্বর কুমার আইপিএল থেকে ছিটকে যাওয়ায় বড় ধাক্কা খেয়েছে হায়দরাবাদের দল। তবে ব্যাটিং লাইনআপ যথেষ্ট শক্তিশালী সানরাইজার্সের। ওপেনিনিংয়ে জনি বেয়ারস্টো ও ডেভিড ওয়ার্নার। মিডল অর্ডারে রয়েছেন মমীশ পাণ্ডে ও কেন উইলিয়ামসন। এছাড়া থাকছে প্রিয়ম গর্গ, বিজয় শংকররা। বোলিংয়ে ভুবি না থাকায় দায়িত্ব বাড়ছে রাশিদ খানের ওপর। এছাড়াও থাকছেন সন্দীপ শর্মা, খাললিল আহমেদ, টি নটরাজনরা। ফলে এই ম্যাচে জয় ছাড়া আর কিছুই ভাবছেন না সানরাইজার্স অধিনায়ক ওয়ার্বার।

অপরদিকে টানা চার ম্যাচ হেরে আত্মবিশ্বাস তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের। একটি জয় গোটা দলের বাতাবরণটা আবার পাল্টে দিতে পারে, তা ভাল করে জানেন কোচ অনিল কুম্বলে। তাই সেই জয়ের খোঁজেই আজ সানরাজার্সকে হারাতে বদ্ধপরিকর কেএল রাহুলের দল। দলে রাহুল ও মায়াঙ্ক আগরওয়াল ফর্মে থাকলেও, মিডল অর্ডারের ধারাবাহিকতার অভাব ডোবাচ্ছে পঞ্জাব দলকে। তাই এই ম্যাচে নিজেদের সেরাটা দিতে চান নিকোলাস পুরান, মনদীপ সিংরা। ম্যাক্সওয়েলের জায়গায় আজ দলে জায়গা পেতে পারেন ক্রিস  গেইল। এছাড়া বোলিং লাইনআপে  মহম্মদ শামি, রবি বিষ্ণোই, শেলডন কটরেলরা ভরসা দিয়েছে দলকে। তাই আজ প্রতিযোগিতায় নিজেদের দ্বিতীয় জয় পেতে মরিয়া গোটা পঞ্জাব দল।