আজ সুপার সানডেতে আইপিএলের ডবল হেডার। দ্বিতীয় ম্যাচে আবুধাবিতে এবারের অইপিএলের সবথেকে উত্তেজক লড়াইয়ের সাক্ষী থাকতে চলেছে ক্রিকেট বিশ্ব। কারণ মুখোমুখি হতে চলেছে লিগস টেবিলের এক ও দুই নম্বর দল, অর্থাৎ দিল্লি ক্যাপিটালস ও মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। আর আজকের ম্যাচের জিতে পারলে এক দিকে রোহিত শর্মার দলের কাছে থাকছে লিগ টেবিলে এক নম্বরে উঠে আসার হাতছানি। অপরদিকে, শ্রেয়স আইয়রের দলের কাছে নিজেদের শীর্ষস্থান ধরে রাখার লড়াই। তাই রবিবাসরীয় আইপিএলে সুপার ম্যাচ দেখার অপেক্ষায় প্রহর গুনছেন ক্রিকেট প্রেমিরা।

প্রথম ম্যাচ সিএসকের কাছে হেরে আইপিএল অভিযান শুর করেছিল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। তারপর পাঁচটি ম্যাচে ৪টি জয়ের সৌজন্য ৮ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে রোহিত শর্মার দল। মাঝে আরসিবির বিরুদ্ধে একটি জেতা ম্যাচ হারতে হয়েছে তাও সুপার ওভারে। ব্যাটিং বোলিং সব বিভাগেই ছন্দে রয়েছে রোহিত শর্মার দল। ওপেনিংয়ে রানে রয়েছেন রোহিত-ডিকক জুটি। মিডল অর্ডারেও দুরন্ত ব্যাটিং করছেন সূর্যকুমার যাদব, ইশান কিষাণরা। শেষে বিধ্বংসী ব্যাটিং করছেন কায়রন পোলার্ড ও হার্দিক পান্ডিয়া। স্পিন বিভাগেও দায়িত্ব নিয়ে বোলিং করছেন ক্রুণাল পান্ডিয়া ও রাহুল চাহার। আর পেস অ্যাটাকে কার্যত আগুন ঝড়াচ্ছেন বুমরা-বোল্ট-প্যাটিনসন ত্রয়ী। লিগ টেবিলের দুই নম্বরে থাকলেও, নেট রানরেটও আইপিএলের বাকি আটটি দলের থেকে ভাল রয়েছে মুম্বইয়ের। ফলে দিল্লিকে হারিয়ে লিগ টেবিললের শীর্ষে জায়গা পাকা করতে মরিয়া চারবারের আইপিএল চ্যাম্পিয়নরা।

অপরদিকে এবারের আইপিএলে সম্পূর্ণ অন্য দিল্লি দলকে দেখছে সকলেই। প্রথম আইপিএল ট্রফি জয়ের লক্ষ্যে এগিয়ে চলেছে শ্রেয়স আইয়রের দল। আইপিএল ২০২০-তে এখনও ৬ ম্যাচে ৫ জয়ের সৌজন্যে ১০ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে রয়েছে দিল্লি। ব্যাটিং-বোলিং সব বিভাগে সবথেকে বেশি সামঞ্জস্য রয়েছে কোচ রিকি পন্টিংয়ের দলে। দুরন্ত ছন্দে রয়েছে গোটা দল। ব্যাটিং লাইনাপে দুরন্ত ফর্মে রয়েছে পৃথ্বী শ। শিখর ধওয়ানের ফর্ম ওঠা-পড়া করলেও, রানের মধ্যে রয়েছেন তিনিও। এছাড়া মিডল অর্ডারেও ফর্মে রয়েছেন শ্রেয়স আইয়র, ঋষভ পন্থরা। শেষে বিধ্বংসী ব্যাটিং করছেন মার্কাস স্টয়নিস ও শেমরন হেটমায়ার। বোলিং অ্যাটাকেও কাগিসো রাবাডা, হার্শল প্যাটেল, অ্যাক্সর প্যাটেলরা। অলরাউন্ডার হিসেবেও ভল বোলিং করছেন স্টয়নিস। ফলে আজকে মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে সবথেকে কঠিন লড়াইয়ে নামার আগেও আত্মবিশ্বাসী দিল্লি ক্যাপিটালস দল। শীর্ষস্থান ধরে রাখার জন্য বদ্ধপরিকর শ্রেয়স আইয়রের দল।

পিচ ও ওয়েদার রিপোর্ট-
আবুধাবির পিচ সম্পূর্ণ ব্যাটসম্যানদের সহায়ক হতে চলেছে। এই মাঠে ইতিমধ্যেই বেশ কিছু ম্যাচ খেলেছে মুম্বই। তাই মাঠ ও পিত সম্পর্কে রোহিত শর্মার দল একটু বেশি ওয়াকিবহাল। প্রথম ও দ্বিতীয় ব্যাটিংয়ে খুব একটা তফাৎ হয়না এই উইকেটে। ব্য়াটিং সহায়ক উইকেট হলেও, স্পিনাররা একটু সুবিধা পেতে পারে বড় মাঠের কারণে। আবুধাবির তাপমাত্রা ৩২ ডিগ্রি কাছাকাছি থাকবে। বজায় থাকবে আদ্রতা জনিত অস্বস্তি। 

ম্যাচ প্রেডিকশন-
তবে বড় ম্যাচের অভিজ্ঞতা ও বোলিং বিভাগের শক্তির বিচারে এই ম্যাচে একটু এগিয়ে থাকার সম্ভাবনা মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন শ্রেয়স আইয়র রোহিত শর্মার দলের দ্বৈরথে শেষ হাসি হাসবে হিটম্যান ব্রিগেড।