আজ আইপিএলে মুখোমুখি হতে বিধ্বংসী ফর্মে থাকা দুই দল। শারজায় হতে চলেছে কিংস ইলেভেন পঞ্জাব ও রাজস্থান রয়্যালসের সুপার ফাইট। তাও আবার শারজার ব্যাটিং সহায়াক ও ছোট বাউন্ডারির মাঠে। তাই আরও একটি হাইস্কোরিং ম্যাচ দেখার অপেক্ষায় ক্রিকেট প্রেমিরা। প্রথম ম্যাচে দুরন্ত খেলেও সুপার ওভারে দিল্লির কাছে হারতে হয়েছিল পঞ্জাবকে। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে দুরন্তভাবে কামব্যাক করে অনিল কুম্বলের দল। আরসিবিকে ৯৭ রানে হারায় কিংস ইলেভেন পঞ্জাব। ৬৯ বলে ১৩২ রানের ঐতিহাসিক ইনিংস খেলেন অধিনায়ক কেএল রাহুল। ফর্মে রয়েছে মায়াঙ্ক অগরওয়ালও। শুধু মিডল অর্ডারে নিকোলাস পুরাণ, করুণ নায়ার, গ্লেন ম্যাক্সওয়েলরা ফর্মে ফিরলেই অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠবে পঞ্জাবের ব্য়াটিং। একইসঙ্গে দুর্নত বোলিংও করছে পঞ্জাব দল। পেস বোলিং অ্যাটাকে দুরন্ত ফর্মে রয়েছেন মহম্মদ শামি ও শেলডন কটরেল। এছাড়া রবি বিষ্ণোই, মপরগান অশ্বিনরা তরুণ হলেও খুব ভালভাবে সামলাচ্ছেন স্পিন বিভাগের দায়িত্ব। ফলে ব্যাটিং বোলিং মিলিয়ে রাজস্থান রয়্যালস বধের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী কিংস ইলেভেন পঞ্জাব।

অপরদিকে প্রথম ম্যাচেই চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে দুরন্ত জয় পেয়েছে রাজস্থান রয়্যালস। সঞ্জু স্যামসনের ৩২ বলে ৭৪ রানের ইনিংস চলতি আইপিএলের অন্যতম সেরা ইনিংস। একইসঙ্গে দুরন্ত ফর্মে রয়েছেন দলের অধিনায়ক স্টিভ স্মিথও। ৬৯ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তিনি। আর সম্ভবত এই ম্যাচে দলে ফিরছেন রাজস্থানের অন্যতম তারকা ব্যাটসম্যান জস বাটলার। ফলে দলের ব্যাটিং শক্তি আরও অনেক বাড়তে চলেছে। শুধু ডেভিড মিলার, রবিন উথাপ্পাদের রানে ফেরার অপেক্ষায় রয়েছে দল। বোলিং বিভাগ নিয়েও কিছুটা চিন্তা রয়েছে রাজস্থান শিবিরের। কারণ প্রথম ম্য়াচে রাহুল তেওয়াটিয়া ৩ উইকেট পেয়েছিলেন। কিন্তু রান খরচ করেছিলেন ৪ ওভারে ৩৭। জোফ্রা আর্চার এক মাত্র ৪ ওভারে ২৬ রান দিয়ে এক উইকেট পেয়েছিলেন। এছাড়া শ্রেয়স গোপাল, টম কুরান, জয়দেব উনাদকাট সকলেই বল হাতে তেমন একটা নজর কাড়তে পারেননি। যদিও দ্বিতীয় ম্য়াচেও জয়ের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী স্টিভ স্মিথের রাজস্থান রয়্যালস দল।

পিচ ও ওয়েদার রিপোর্ট- শারজায় খেলা হবে আইপিএলের এই গুরুত্বপূর্ণ ম্য়াচ। শারজার উইকেট মুলত পাটা ব্যাটিই উইকেটই থাকবে গত ম্যাচের মত। সেখানে বোলারদের জন্য খুব একটা সুবিধা থাকবে না। তারউপর শারজার ছোট বাউন্ডারিও ভোগাবে বোলারদের। ফলে বিগ স্কোরিং ম্যাচ হওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশি। পাশাপাশি শারজার আবহাওয়া থাকবে ২৪ ডিগ্রির মত। তবে আদ্রতা জনিত অস্বস্তি থাকবে।

ম্যাচ প্রেডিকশন- দুই দলই যথেষ্ট শক্তিশালী। দুই দলেই রয়েছে একাধিক ম্য়াচ উইনিং প্লেয়ার। কিন্তু ব্যাটিং-বোলিং বিভাগের সার্বিক শক্তি বিচার করে আইপিএলের গুরুত্বপূর্ণ ম্য়াচে কেএল রাহুলের কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের এই ম্য়াচ জেতার সম্ভাবনা বেশি।