গত আইপিএলে বোলিংয়ের আগেই ক্রিজ ছেড়ে বেড়িয়ে যাওয়ায় আর অশ্বিনের হাত থেকে রক্ষা পাননি জস বাটলার। মাঁকড় পদ্ধতিতে আউট করে ব্রিটিশ তারকাকে প্যাভেলিয়নে পাঠিয়েছিলেন অশ্বিন। যা নিয়ে তুমুল বিতর্ক হয়েছিল ক্রিকেট বিশ্বে। কেনও এইভাবে আউট করলেন অশ্বিন তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। ভারতীয় স্পিনারের স্পোর্টসম্যান স্পিরিট নিয়েও উঠেছিল প্রশ্ন। ২০২০ সাললের আইপিএলেও সোমবার আরসিবি বনাম দিল্লি ম্যাচে অশ্বিনের কাছে এসছিল মাঁকড় পদ্ধতিতে আউট করার সুযোগ। কিন্তু এবার আর আউট করলেন না অশ্বিন।

 

 

সোমবার আরসিবি বনাম দিল্লি ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে বিরাট কোহলির দলকে ১৯৭ রানের টার্গেট দেয় শ্রেয়স আইয়রের দল। রানা তাড়া করতে নেমে আরসিবির ইনিংসের তৃতীয় ওভারে করছিলেন অশ্বিন, সেই সময় ক্রিজ ছেড়ে অনেকটা এগিয়ে যান অজি তারকা অ্যারন ফিঞ্চ। ডেলিভারি করার সময় অশ্বিন দাঁড়িয়ে পড়েন। কিন্তু এবার আর আউট করেননি তিনি। ফিঞ্চের দিকে একগাল হাসি দিয়ে অজি ওপেনরাকে সতর্ক করে দেন তিনি। ঘটনার পর হাসতেও দেখা যায় রিকি পন্টিংকে। কারণ অশ্বিনকে মাঁকড় পদ্ধতিতে আউট করতে বারণ করেছিলেন দিল্লি ক্যাপিটালসের কোচ রিকি পন্টিং।  এ দিন ফিঞ্চকে আউট না করে কেবল সতর্ক করে দেওয়ার পরে অনেকেই বলছেন কোচ পন্টিংয়ের কথা শুনেছেন অশ্বিন। 

 

 

অশ্বিনের এই আউট না করা নিয়েও সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোড়ন তৈরি হয়। নান মুনি না মত পোষণ করেন। বিষয়টি বুঝতে পেরে, নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে পোস্ট করে অশ্বিন মজার ছলে লেখেন,'একটা জিনিস পরিস্কার করে দেওয়া ভাল, প্রথম এবং শেষ সতর্কতা ২০২০ সালের। অফিসিয়ালই জানিয়ে দিচ্ছি এরপর আমাকে দোষ দেবেন না। রিকি পন্টিং, অ্যারন ফিঞ্চ এবং আমি কিন্তু ভাল বন্ধু।' গতবার যে কারণে ব্যাপক সমাললোচনার মুখে পড়তে হয়েছিলল এবার সেই সমালোচনার হাত থেকে রক্ষা পেলেন অশ্বিন।