চিকিৎসার গাফিলতি নিয়ে আরও একবার অভিযোগ উঠল সরকারী হাসপাতালের বিরুদ্ধে। ভূল চিকিৎসার স্বামীকে হারিয়েছেন বলে দাবি, মৃতের স্ত্রীর। ইতিমধ্য়েই তিনি এসএসকেম হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। 

আরও পড়ুন, তিন বছরের শিশুকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ, এবার শিয়ালদহ স্টেশন চত্ত্বরে

সূত্রের খবরে জানা গিয়েছে, গত ২২ ডিসেম্বর কাজল পাল নামে এক ব্যক্তি ট্রেন থেকে নামতে গিয়ে পা পিছলে পড়ে যান।  পা এবং মাথায় গুরুতর চোট পান ওই ব্য়ক্তি। এর পর তাঁকে এসএসকেএম হাসপাতালে ভরতি করা হয়। অস্ত্রোপচার করে তাঁর বাঁ পা বাদ দেওয়া হয়। তাঁর মাথার স্ক্যানও করা হয়। তাঁর পরিবারের দাবি,এসএসকেএম হাসপাতালের তরফে চিকিৎসকেরা,  কাজল পাল নামে ওই ব্য়ক্তির ব্রেন হেমারেজ নিয়ে রিপোর্টে কোনও তথ্য় মেলেনি। ক্রমশ তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ফের তার ব্রেন স্ক্য়ান করানো হয়। অবশেষে দ্বিতীয়বারের ব্রেন স্ক্য়ানের রিপোর্ট বেরোনোর পর চিকিৎসকেরা জানান, তাঁর ব্রেন হেমারেজ রয়েছে। এবং চিকিৎসকেরা আরও  জানান যে, ওই ব্য়ক্তির অস্ত্রপ্রচারেও কিছু ভূল হয়েছে। এদিকে আজ রবিবার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সূত্রে পরিবারকে জানানো হয়, তাঁর মৃত্য়ু হয়েছে। 

আরও পড়ুন, হাড় কাঁপানো শীতে কাবু কলকাতা, তাপমাত্রা আজও স্বাভাবিকের থেকে নীচে

স্বাভাবিকভাবেই প্রিয়জনকে ভূল চিকিৎসায় হারানওর জন্য় মৃতের পরিবার ক্ষোভে ফেটে পড়েন। তাদের অভিযোগ, এসএসকেএম হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতেই ওই ব্য়ক্তির মৃত্য়ু হয়েছে। এবং পরিবারের তরফে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়। মৃতের স্ত্রীর দাবি, চিকিৎসকের ভূল অস্ত্রপ্রচার এবং গাফিলতিতেই তিনি তাঁর স্বামীকে চিরকালের মত হারিয়ে ফেললেন। অবশ্য় এই অভিযোগ পুরোটাই অস্বীকার করেছে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।