করোনা রুখতে কোনও নিরাপত্তার কোনও  ত্রুটি রাখতে চাইছে না প্রশাসন। তাই এবার আরও সতর্কতামূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করল শহরের এক বেসরকারি হাসপাতাল। করোনা সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচাতে রোগীদের আত্মীয়দের হাসপাতালে প্রবেশে যবনিকা টানতে শুরু হল  'ভারচুয়াল ভিজিটিং আওয়ার্স'। 

 

আরও পড়ুন, চিন থেকে সোজা কলকাতা বিমানবন্দরে, ১০ টন করোনা-চিকিৎসার সামগ্রী নিয়ে শহরে নামল উড়ান


হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, সল্টলেকের একটি বেসরকারি হাসপাতালে 'ভারচুয়াল ভিজিটিং আওয়ার্স' রবিবার থেকেই চালু হচ্ছে। বিকেল সাড়ে চারটে থেকে সাড়ে পাঁচটা  পর্যন্ত 'ভারচুয়াল ভিজিটিং আওয়ার্স' প্রথম শুরু হবে । প্রত্যেক রোগীর সঙ্গে দেখার জন্য ৩ থেকে ৪ মিনিট করে সময় পাবেন সংশ্লিষ্ট রোগীর আত্মীয়েরা। ভিডিও কলে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন তাঁরা। আর এই যোগাযোগে সাহায্য করবেন ওয়ার্ডে কর্তব্যরত নার্স। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, হাসপাতাল যথা সময়ে জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করা হলেও প্রতিনিয়ত নানা ধরনের রোগীরা চিকিৎসার জন্য আসেন। সেক্ষেত্রে কার শরীরে কোন মুহূর্তে কী রোগ বাসা বেধে রয়েছে, তা পরীক্ষা না করা পর্যন্ত বোঝা সম্ভব নয়। তাই সংক্রমণ রুখতে এই সিদ্ধান্ত।

আরও পড়ুন, করোনা উপসর্গ সহ হাসপাতালে ভর্তি সল্টলেকের আরও ১, আতঙ্কে এলাকার সমস্ত গলি বন্ধ করল বাসিন্দারা


হাসপাতালের সিইও রূপক বড়ুয়া জানিয়েছেন, 'হাসপাতালে যেহেতু রোগীরা মোবাইল রাখতে পারছেন না, তাই রোগীদের স্বার্থে ভার্চুয়াল ভিজিটিং আওয়ার' চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রোগী ও তাঁর পরিবার যাতে হতাশ না হয়ে পড়েন, তাই এই পরিকল্পনা।'  তিনি আরও জানিয়েছেন, 'আজ শুধু সল্টলেকে চালু হলেও,  আগামী সপ্তাহেই মুকুন্দপুর এবং ঢাকুরিয়া শাখাতেও এই পরিষেবা চালু হয়ে যাবে।'

 

কেন্দ্র বলছে ৫৭১, রাজ্য়ের হিসেবে বাংলায় করোনা অ্যাকটিভ ৪২৩

 মল্লিক বাজারের নিউরো হাসপাতালে করোনা পজিটিভ ২ শীর্ষ কর্তা, সংক্রমণের আশঙ্কায় চূড়ান্ত সতর্কতা

 এবার বেসরকারিতেও করোনা চিকিৎসায় মিলবে বিনামূল্য়ের পরিষেবা, হাসপাতালের খরচও দেবে রাজ্য সরকার