শান্তিপূর্ণ এবং সংযতভাবে কালী পূজার উৎসব পালন করতে হবে। মঙ্গলবার নবান্নে এই কথা বললেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানান, দুর্গাপুজোর সময় যে ভাবে আমরা সংযত থেকেছি, এই সময়ে সেই ভাবেই আমাদের সংযত থাকতে হবে। একই সঙ্গে তিনি জানান, করোনা রোগীদের কথা মাথায় রেখে মানবিক দিক থেকে আমাদের ভাবতে হবে। বায়ুদূষণ যাতে না হয় তা দেখতে হবে। এই সময়ে বাজি ফাটানো বা পোড়ানো খুব মারাত্মক হতে পারে। সেই কারণে এই সময় বাজি ব্যবহার করবেন না। 

আরও পড়ুন-লোকাল ট্রেনের চাকা গড়ানোর ইঙ্গিত, সমাধান সূত্রের খোঁজে বুধবার রাজ্য়-রেল বৈঠক

পাশাপাশি তিনি আরো বলেন, পুজো বন্ধ হোক সেটা কেউ চায় না। দুর্গাপুজো যেমন সুন্দর ভাবে হয়েছে। ঠিক তেমন ভাবে কালীপুজো করতে চাই। দুর্গাপুজোয় সবাই শান্তভাবে উদযাপন করেছি এই ক্ষেত্রেও সেই ভাবে উদযাপন করবো। 

আরও পড়ুন-দিন পালটালো হতদরিদ্র মূক-বধিরের, ৩০ টাকার লটারির টিকিটে কোটি টাকার বাজিমাৎ

সঙ্গে তিনি বলেন এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রশাসনিক কর্তাদের নিয়ে যে বৈঠক করেছেন সেখানে সিদ্ধান্ত হয়েছে, বিসর্জনের সময় স্থানীয় পুলিশের সঙ্গে আলোচনা করে করতে হবে। মণ্ডপ তৈরির ক্ষেত্রেও নির্দেশিকা পালন করতে হবে। প্রতিমার উপরে আচ্ছাদন থাকলেও, মণ্ডপের চারিদিক খোলা রাখতে হবে। বিসর্জনের শোভাযাত্রা করা যাবে না। যদিও এই সব ক্ষেত্রে স্থানীয় পুলিশ সব রকমের সাহায্য করবে। 

আরও বলুন-ভোটের আগে শুভেন্দুর নামে কি নতুন দল, পুরুলিয়ার বিজয়া সম্মিলনীর অনুষ্ঠান বাড়িয়ে দিল জল্পনা

প্রসঙ্গত এদিন প্রশাসনের কর্তাদের সঙ্গে নিয়ে নবান্নে কালীপুজো বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে ছিলেন রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র, কলকাতা পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা এবং অন্যান্য আধিকারিকরা।