রাজ্য রাজনীতিকে এখন চর্চায় রয়েছেন তৃণমূলের প্রথমসারির মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। দীর্ঘ দিন ধরে তৃণমূল দলের সক্রিয় ভূমিকায় না থেকে অন্তরালে ছিলেন তিনি। তৃণমূলের জনপ্রিয় নেতা বিজেপিতে যোগদান করছে বলে জল্পনা শুরু হয়। কিন্তু, সম্প্রতি দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় সক্রিয়তা পেয়েছে 'আমরা দাদার অনুগামী'। কোনও রাজনৈতিক ব্যানার ছাড়াই 'আমরা দাদার অনুগামী' এই ব্যানারে বিভিন্ন জায়গায় সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগ দিচ্ছেন শুভেন্দু। 

আরও পড়ুন-পুরুলিয়ায় সফল মাটির সৃষ্টি প্রকল্প, মাঠে উৎপাদিত ফসল সরাসরি বাজারে

মেদিনীপুর ছাড়িয়ে সুখা মাটি পুরুলিয়া জেলাতেও সক্রিয়তা পেয়েছে 'আমরা দাদার অনুগামী'। গোটা পুরুলিয়া শহর জুড়ে হোর্ডিং পড়েছে শুভেন্দুর। বিজয়া সম্মিলনী অনুষ্ঠানের হোর্ডিংয়ে শুভেন্দু অধিকারীর ছবি। নীচে লেখা রয়েছে 'আমরা দাদার অনুগামী'। আমন্ত্রণ পত্রও ছাপানো হয়েছে 'আমরা দাদার অনুগামী' নাম দিয়ে। সেখানে তৃণমূল কংগ্রেসর নাম উহ্য রাখা হয়েছে।  জানাগেছে, দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে 'আমরা দাদার অনুগামী' নামে শুভেন্দুর একটি দল সক্রিয় হয়েছে। পুরুলিয়াতেও বহু তৃণমূলকর্মী রয়েছেন 'আমরা দাদার অনুগামী' দলে।

আরও পড়ুন-অগ্নিদগ্ধ হয়ে একই পরিবারের তিন সদস্যের রহস্য মৃত্যু, ঘরের দরজা ভেঙে জীবীত উদ্ধার নাবালিকা

আগামী শনিবার, ৭ নভেম্বর পুরুলিয়া শহরে হরিপদ সাহিত্য মন্দিরে বিজয়া সম্মিলনীর আয়োজন করেছেন শুভেন্দুর অনুগামীরা। আসতে পারেন শুভেন্দু অধিকারীও। আয়োজকদের মধ্যে অন্যতম সদস্য হলেন পুরুলিয়া জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক গৌতম রায়। শুভেন্দুর বিষয়ে তিনি অবশ্য বলেন, এটা দলের বিরুদ্ধাচরণ নয়। তবে তাঁরা যে পুরনো বসে যাওয়া দলীয়  কর্মীদের বিজয়া সম্মিলনীর অনুষ্ঠানে ডাকছেন তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন তিনি।

তৃণমূলের পুরুলিয়া জেলা মুখপাত্র নবেন্দু মাহালি অবশ্য বলেন, ''দলে নেতা বা নেত্রী একজনই, বাকি কেউ কারও অনুগামী থাকতেই পারেন''। তবে, তৃণমূলের ব্যানার ছাড়াই শুভেন্দুকে বিজয়া সম্মিলনীতে আমন্ত্রণ ঘিরে দোষের কিছু দেখছেন না বলে জানালেন তিনি। এদিকে 'আমরা দাদার অনুগামী' দলে রয়েছেন, তৃণমূলের প্রাক্তন জেলা সভাধিপতি তথা বলরামপুর তৃণমূলের ব্লক সভাপতি সৃষ্টিধর মাহাতো। ২০১৮ সালে পঞ্চায়েত নির্বাচনে বলরামপুর থেকে জেলা পরিষদের আসনে বিজেপির কাছে হেরেছিলেন সৃষ্টিধর মাহাতো। তারপর থেকেই সৃষ্টিধর মাহাতোকে কার্যত বসিয়ে দেয় তৃণমূল। তিনি বরাবরই শুভেন্দু অধিকারী ঘনীষ্ঠ। এই অবস্থায় তিনিও 'আমরা দাদার অনুগামী' দলে নাম লিখিয়েছেন।