কোভিড ভ্য়াকসিনেশনের শিবির এবার উচ্চ আদালতেও। উল্লেখ্য রাজ্যে কোভিড সংক্রমণ এবং মৃত্যু কমলেও পরিস্থিতি এখনও হাতের নাগালের বাইরে। তাই ঝুঁকি না নিয়ে রাজ্যের  আদালতের দিকেও কোভিড মোকাবিলায় বড় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এই বিভাগের সকল সদস্য-কর্মচারীদের ভ্যাকসিন দিতে   কোভিড-১৯ টিকাদান শিবির পরিচালনা করতে চলেছে স্বাস্থ্য বিভাগ, সরকার।

আরও পড়ুন, কলকাতা সহ গোটা রাজ্যে কমল কোভিড সংক্রমণ, একদিনে মৃত্যু ১০৭ 

 


 আলিপুর বার অ্যাসোসিয়েশন (সিভিল উইং) এর সম্পাদক সুদীপ ভৌমিক জানিয়েছেন যে,  আলিপুর বার অ্যাসোসিয়েশন অ্যাডভোকেটস এবং আইনের ক্লার্ক পদের কর্মচারী, স্ট্যাম্প বিক্রেতারা, শপ কিপারস, অ্যাডভোকেটের ড্রাইভার এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের সমর্থনে একটি  কোভিড-১৯ টিকাদান শিবির পরিচালনা করতে চলেছে স্বাস্থ্য বিভাগ, সরকার। পশ্চিমবঙ্গের আলিপুর জাজেস কোর্টের বার লাইব্রেরিতে।  রাজ্যের বিধানসভায় স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের সক্রিয় উদ্যোগ টিকাদান শিবিরে, পূর্বোক্ত শ্রেণির পরিবারের সদস্যদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। সেজন্য তাঁরা একটি গুগুল লিঙ্কও দিয়েছে। ওই গুগল লিঙ্কে ৭ তারিখ দুপুর ১২ টার মধ্য়ে নিজের বয়েস এবং বিভাগ অনুযায়ী যাবতীয় তথ্য সহ নথিভুক্তকরণ করাতে হবে। তালিকাভুক্ত ভ্য়াকসিন গ্রাহকদের নাম এবং ভ্যাকসিন গ্রহণের তারিখ একদিন আগেই জানানো হবে।

 

 

আরও পড়ুন, কমলা আকাশ ঢাকল ঘন ছাই মেঘে, বজ্রবিদ্যুৎ সহ দাপিয়ে বৃষ্টি শুরু কলকাতায় 

সিভিল কোর্টের ক্ষেত্রে ১৮ থেকে ৪৪ বছর বয়সীদের জন্য, https://forms.gle/mpVZEw1SZ3fpxABp8 এই লিঙ্কে নথিভুক্তকরণ করতে হবে। এবং ৪৫ বছর খেকে উর্ধ্ব বয়সীদের জন্য, https://forms.gle/wordTZUnb3Z4gfeV6 এই লিঙ্কে ফর্ম ফিলাম বা তথ্য জমা করতে হবে। কলকাতা হাইকোর্টের ক্ষেত্রে আগ্রহী সদস্যদের নাম নথিভুক্তি করাতে হবে http://vaccine.bahcc.co.in/ এই লিঙ্কে। তবে অবশ্যই সেটা ১৭ জুনের মধ্যেই যাবতীয় তথ্য সহ নথিভুক্তকরণ করাতে হবে। উল্লেখ্য এক্ষেত্রে সকল সদস্যদের http://www.cowin.gov.in/home সরকারি এই লিঙ্কে গিয়ে নাম নথিভুক্তকরণ বাধ্যতামূলক।