ভোটের আগে আরও একবার শক্তি বাড়াল তৃণমূল কংগ্রেস। সোমবার রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূল নেতা ব্রাত্য বসু ও মলয় ঘটকের উপস্থিতিতে সুশীল সমাজের বেশ কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দান করেন। যাঁদের মধ্যে অন্যতম হলেন আনোয়ার পাশা। যিনি ২০১৩ সাল থেকেই আসাদউদ্দিন ওয়েসির ঘনিষ্ট বলে পরিচিত। এই রাজ্যের  এআইএমআইএম বা সর্বভারতীয় মজলিস ই ইত্তেহাদুল মুসলিমিন এর  প্রথম সারির নেতা হিসেবেও পরিচিত ছিলেন।  আনোয়ার পাশা সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজের প্রাক্তনি। তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করে তিনি বলেন, বাংলা এমন একটা রাজ্য যেখানে প্রতিটি ধর্মই তার নিজের জায়গা খুঁজে পেয়েছিল। আমরা সেই ধর্মীয় সহাবস্থানের ক্ষতি হতে দিতে পারি না। নির্বাচনের পর বিহারে যা ঘটেছিল তা থেকে বাংলার শিক্ষা নেওয়া উচিৎ বলেও তিনি মনে করেন। 


রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে বাংলায় ক্রমশই প্রভাব বাড়াচ্ছেন হায়দরাবাদের সাংসদ আসাদউদ্দিন ওয়েসি। এরাজ্যের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনকেও তাঁরা রীতিমত গুরুত্ব দিচ্ছেন। দলীয় সূত্রে খবর এই রাজ্যে বেশ কয়েকটি আসনে প্রার্থী দেওয়ার চেষ্টা করছেন আসাদউদ্দিন। কিন্তু তাঁর আগেই আনওয়ার পাশা দলবদল করার রীতিমত ধাক্কা খেল মিম।  যদিও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মিমকে বিজেপির থেকে  আলাদা করে দেনন না। তিনি একাধিকবার ঘনিষ্ট মহলে দাবি করেছেন সংখ্যালঘু ভোট ভাগ করে দেওয়ার মিমের উদ্দেশ্য। যদিও সেইসব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন আসাদউদ্দিন। 

বিতর্কের জেরেই ভোলবদল বাম সরকারের, রাজ্যপালের সইয়ের পরেও কার্যকর হচ্ছে না পুলিশ আইন ...

সাংসদদের জন্য ঝাঁচকচকে আবাসনের উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর, ছবির সঙ্গে রইল থুঁটিনাটি তথ্য ...
এদিন শুধু আনোয়ার পাশাই তৃণমূল কংগ্রেসের যোগ দেননি। তাঁর সঙ্গে এদিন ঘাসফুলের পতাকা তুলে নিয়েছেন, মুর্শিদ আহমেদ,, আলি বক্স, এসকে হাসিকুল ইসলামস আরও বেশ কয়েকজন। আর এই দলবদলের কারণে তৃণমূল কংগ্রেস আরও কিছুটা অক্সিজেন পেল বলাই যেতে পারে।