সম্পূর্ণ লকডাউনের মধ্য়েই চলল প্রবেশিকা পরীক্ষা। জেনে অবাক হল পুলিশ প্রশাসন। খাস কলকাতায় এমনই এক চিত্রের সাক্ষী থাকল মহানগরবাসী। জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার টাটা কনসালটেন্সি সার্ভিসেসের সামনে নির্দিষ্ট স্থানেই এই পরীক্ষা হয়। সকালের সঙ্গে সঙ্গে দুপুরেও ছিল প্রবেশিকার ব্যবস্থা।

পরীক্ষার্থীরা জানান, দুপুর তিনটের সময় তাদের দ্বিতীয় পরীক্ষা শুরু হয়। বেনারস হিন্দু ইউনিভারসিটির আইন বিভাগের প্রবেশিকা ছিল আজ। ছাত্রছাত্রীরা জানিয়েছেন, বহুদিন আগেই এই পরীক্ষার দিন ঠিক  হয়েছিল। আনলক ৩-এর সময় থেকেই সব সূচি মেনে ঠিক হয়। সেই অনুযায়ী ভিন রাজ্য় থেকে পরীক্ষার্থীরা আগেই পৌঁছেছিলেন শহরে।  তবে অনকে জানিয়েছেন এদিন লকডাউন থাকার কারণে পরীক্ষার স্থানে আসতে বেগ পেতে হয় তাদের।

রাজ্য়ের সাম্প্রতিক  পরিস্থিতি বলছে, ২৭ তারিখ আজ রাজ্য়ে কমপ্লিট  লকডাউনের ঘোষণা করেছে রাজ্য় সরকার। তার মধ্য়ে পরীক্ষা জেনে অবাক হয়েছেন অনেকেই। আগামী ৩১তারিখও রাজ্যে লকডাউন রয়েছে। তবে এতে কোনও সমস্য়া দেখছেন না রাজ্য়বাসীর একাংশ। তাদের মতে, এমনিতেই এক লকডাউন ঘোষমায় চারবার দিন বদল হয়েছে রাজ্য়ে। যার জন্য় অনেকেই ঠিক কবে পূর্ণ লকডাউন তার দিন বলতে পারবেন না। বহুবার দিন বদলে সমস্য়া হয়ে থাকতে পারে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের। তাই এই প্রবেশিকার মধ্য়ে অহেতুক খুদ খুঁজছেন না তারা।

এদিকে, অগস্টের মতো সেপ্টেম্বরেও রাজ্য়ে সম্পূর্ণ লকডাউন থাকবে। আগামী মাসেও নির্দিষ্ট দিনে চলবে সেই লকডাউন। নবান্নে মুখ্য়মন্ত্রী জানিয়েছেন, আপাতত ৭,১১, ১২ সেপ্টেম্বর রাজ্য়ে পূর্ণ লকডাউন  থাকবে।

কদিন ধরেই রাজ্য়ে পয়লা সেপ্টেম্বর থেকে লোকাল ট্রেন মেট্রোরেল চালানোর জল্পনা সামনে আসছিল। এদিন যা নিয়ে মুখ্য়মন্ত্রী বলেন, ১ সেপ্টেম্বর থেকে রাজ্য়ে ট্রেন বা মেট্রো চালু হলে রাজ্য় সরকারের কোনও আপত্তি  নেই। তবে তা যেন সামাজিক দূরত্ব মেনে হয় তা নজর রাখতে হবে। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকার ও রেল কর্তৃপক্ষ রাজ্য়ের সঙ্গে একবার কথা বলে নিলে ভালো হয়। আগামী আনলক ৪ শুরু হতেই  চালু হতে পারে মেট্রো পরিষেবা। দেশের সঙ্গে  সঙ্গে কলকাতাতেও চাকা ঘুতে পারে মেট্রোর।  এখন সবই শুধু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের সবুজ সংকেতের অপেক্ষায়। তবে চালু হলেও কীভাবে সামাজিক দূরত্ব মানা হবে মেট্রোতে, তা নিয়েই চিন্তায় কর্তৃপক্ষ।