বাংলাদেশ থেকে ভারতে সোনা পাচারের অভিযোগে কলকাতায় বিপুল সোনাসহ ধৃত এক বাংলাদেশি নাগরিক। বাংলাদেশের নাগরিকের নাম মিজানুর রহমান, সে বাংলাদেশের লক্ষ্মীপুর জেলার দক্ষিণ রায়পুর গ্রামের বাসিন্দা। 

এদিন ভারতীয় সময় দুপুর ২.৪৫ নাগাদ কলকাতার রবীন্দ্র সরণির হোটেল রয়্যাল-এর সামনে থেকে  তাকে গ্রেফতার করে কলকাতা পুলিসের এসটিএফ। সে সময় তার থেকে উদ্ধার হয় ৫৮৩ গ্রাম সোনা। ধৃতের কাছে থেকে ১১৬.৫ গ্রাম ওজনের ৫টি সোনার বার উদ্ধার হয়। পুলিশ সূত্রে খবর, সীমান্তে নিরাপত্তার বেড়াজাল এড়িয়ে বাংলাদেশ থেকে বেনাপোল পেট্রাপোল সীমান্ত হয়ে এই বিপুল পরিমাণ সোনা নিয়ে ভারতে প্রবেশ করে মিজানুর। এরপর বনগাঁ স্টেশন থেকে লোকাল ট্রেনে শিয়ালদহে আসে সে।  সেখান থেকে কলকাতার বড় বাজারে সোনার মার্কেটে সোনার বার গুলি বিক্রির পরিকল্পনা ছিল তার। 

কিন্তু গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তার আগেই তাকে হেফাজতে নেয় এসটিএফ । বড়বাজার থানায় তার বিরুদ্ধে  ভারতীয় আইনের আইপিসি আন্ডার সেকশন ৩৭৯ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। চলতি মাসেই এই নিয়ে তিনটি সোনা উদ্ধারের ঘটনা ঘটল কলকাতায়। আসন্ন দীপাবলি ও ধনতেরাস উপলক্ষে কলকাতাসহ ভারতে সোনার চাহিদা বাড়ায় চলতি মাসে সোনা চোরাচালানের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে বলে অনুমান গোয়েন্দাদের ।