রবিবার হালিশহরে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের ওপর হামলার প্রতিবাদে বেলঘরিয়া কল্যাণী এক্সপ্রেসওয়ের শ্যামনগর বাসুদেবপুর মোড় অবরোধ করল বিজেপি। পাশাপাশি অবরোধ করা হয়েছে কাঁকিনাড়ার পানপুর মোড়। এছাড়াও রাজ্য়ের একাধিক জায়গায় সাংসদের ওপর হামলার প্রতিবাদে সরব হয়েছে বিজেপি। অর্জুনের ওপর হামলা নিয়ে মুখ খুলেছেন খোদ রাজ্য়পাল জগদীপ  ধনখড়।

গতকাল বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে ফের রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছিল হালিশহর। বিজেপির কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে হামলার অভিযোগ উঠেছে। ভাঙচুর করা হয়েছে ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংয়ের গাড়ি। রবিবার উত্তর ২৪ পরগণার এই ঘটনার খবর পৌঁছে গিয়েছে দিল্লি পর্যন্ত। সাংসদদের খবর নিয়েছেন বিজেপির  শীর্ষ নেতৃত্ব।
 
জানা গিয়েছে, হালিশহরে বিজেপির পাশাপাশি তৃণমূলেরও একটি কর্মসূচি ছিল। বিজেপির  অভিযোগ, দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে  গেলে অর্জুন সিংয়ের গাড়ি ভাঙচুর করে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা। এ বিষয়ে সাংসদ অর্জুন সিং বলেন, দলীয় কর্মীর বাড়িতে মিটিং করছিলাম তখন আমার গাড়িতে তৃণমূল নেতা সুবোধ অধিকারী ও তার গুন্ডা বাহিনী হামলা করে। ভাঙচুর করা হয় আমার গাড়ি।

বাদ যায়নি  দলীয় কর্মীদের বাইক। বোমা ছোড়া হয় সেই বাইকগুলিতে। তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা সেই বাইকগুলি ভাঙচুর করে বলে অভিযোগ। সাংসদের অভিযোগ, তাকে এবং দলীয় কর্মীদেরও লক্ষ্য় করে বোমা ছোড়া হয়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে উত্তর ২৪ পরগনার হালিশহরে। অন্যদিকে, বোলদেঘাটায় তৃণমূলের কার্যালয়ে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে।