তৃণমূলের ২১শে জুলাইয়ের পাল্টা এবার প্রহসন দিবসের ডাক দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আজ রাজ্যের জায়গায় জায়গায় কালো পতাকা, কালো ব্যাজ পরে তৃণমূলের গণতন্ত্র হত্য়ার প্রতিবাদ জানাবে বিজেপি। 

এ প্রসঙ্গে মেদিনীপুরের সাংসদ বলেন, ১৯৯৩ সালে বাম জমানায় গুলিতে নিহত শহিদদের স্মরণে মুখ্যমন্ত্রী শহিদ দিবস পালন করেন। বর্তমানে শহিদ দিবস পালনের অধিকার মুখ্যমন্ত্রী হারিয়েছেন। কারণ রাজ্য়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে নিজে যে আন্দোলন করেছিলেন, ক্ষমতায় বসে তার রাজ্য়েই প্রতিনিয়ত সেই গণতন্ত্র লুঠ হচ্ছে। রাজনৈতিক বিরোধীদের গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নেওয়া হচ্ছে। তাই তৃণমূলের শহিদ দিবস এখন কেবল প্রহসনে পরিণত হয়েছে। সেকারণে রাজ্য়ে ২১ জুলাইয়ের পাল্টা প্রহসন দিবস পালন করবে বিজেপি।

pic.twitter.com/5FEvQuiX2T

— Dilip Ghosh (@DilipGhoshBJP) July 20, 2020  

 

এই বলেই অবশ্য় থেমে থাকেননি রাজ্য় বিজেপির কান্ডারি। তিনি  বলেন, রাজ্য়ে বিজেপির নেতা-কর্মীরা একের পর এক খুন হচ্ছে। সম্প্রতি হেমতাবাদে বিধায়ক খুন হয়েছেন। চোপড়ায় কিশোরীকে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে মহিলাদের সুরক্ষা নেই। এখন সময় এসেছে, রাজ্যবাসী ঠিক করুক কতদিন এই সরকার রাখা যায়।

প্রতিবছরই ২১ জুলাই পালন করে তৃণমূল। রাজ্য়ের করোনা পরিস্থিতিতে এবার জনসমাবেশের পথে না হেঁটে ভারচুয়াল সভা করছে শাসক দল। যা নিয়ে ইতিমধ্য়েই তৃণমূলকে খোঁচা দিতে ছাড়েনি বিজেপি। অতীতে বিজেপির ভারচুয়াল সভা নিয়ে মোদী, অমিত শাহদের কটাক্ষ করা হয়েছিল। অনেকেই বলেছিলেন, জনসংযোগ নেই তাই ভারচুয়ালেই দুধের স্বাদ ঘোলে মেটাচ্ছে বিজেপি। দেখা গেল, এবার করোনা থেকে বাঁচতে সেই বিজেপির পথেই হাঁটল তৃণমূল।