২৪ ঘণ্টাও কাটল না। বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়শনকে পাল্টা দিল বিজেপির সংখ্যালঘু মোর্চা। রাজ্য় বিজেপির সংখ্য়ালঘু সেলের সভাপতি আলি হোসেইন  বলেন,কে বিজেপি-আরএসএস করবে তা নিয়ে ফতোয়া জারি  করতে পারে না ইমামদের সংগঠন। কোন কোরান থেকে তারা এই নির্দেশ  দিচ্ছেন ?

বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্য়ের বহু মুসলিমই যোগ দিতে পারেন বিজেপিতে। বেগতিক  দেখে এবার গেরুয়া ঘেঁষা মুসলিমদের বিরুদ্ধে ফরমান জারি করলেন বেঙ্গল ইমাম অ্য়াসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট মহম্মদ ইয়াহিয়া। এক লিখিত  বিবৃতিতে তিনি বলেন, মুসলিমদের কেউ যদি বিজেপিতে যোগ দেন তবে তাঁকে মুসলিম হিসেবে গণ্য় করা হবে  না। তাঁর দাবি, মুসলিমদের কেউ কেউ রাজনীতির ক্য়ারিয়ার পেতে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছে।  তাদের মনে রাখতে হবে,বিজেপি ও আরএসএস মুসলিম বিরোধী। বিজেপিতে যাওয়া এই মুসলমানদের বিরুদ্ধেও পরে আওয়াজ উঠবে। কোনও মুসলিম বিজেপিতে যোগ দিলে তাঁকে মুসলিম হিসেবে গণ্য় করা হবে না।

যদিও ইমামদের এই দাবিতে পাত্তাই দিল না রাজ্য় বিজেপির  সংখ্যালঘু সেল। পাল্টা তাঁদের দাবি,এবার পাঁচ গুণ সংখ্য়ালঘু সদস্য সংখ্য়া বাড়াবে বিজেপি। ইতিমধ্য়েই তাঁদের মোর্চায় ৭৫ হাজার বাংলার মুসলিম যোগ দিয়েছেন। আগাামী দিনে তা আরও বাড়বে। কোনও ধর্মগ্রন্থে কোনও রাজনৈতিক দলে যোগ দেওয়ায় নিষেধাাজ্ঞা নেই। বিজেপি করলে মুসলিম নন, আর তৃণমূল করলে মুসলিম এটা কোন হাদিসে বলা আছে। কোন কোরান থেকে ইমাম অ্যাসোসিয়েশন এই ফরমান জারি  করলেন। আসলে তৃণমূল কংগ্রেসের নন খেয়ে ইমামদের একাংশ গুণ গাইছেন।