ফের শহরের বাড়ি থেকে উদ্ধার হল বৃদ্ধার দেহ। ঘটনা বেহালার শিশির বাগান এলাকার। মৃতার নাম শুভ্রা ঘোষ দস্তিদার। বৃহস্পতিবার বাড়ি থেকেই তাঁর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। পুলিশের অনুমান, খুন করা হয়েছে বৃদ্ধাকে। 

জানা গিয়েছে, বৃদ্ধার ছেলে ও বউমা দুজনেই চাকরি করেন। নাতনিও স্কুলে গিয়েছিল। ফলে আজ সকালে সবাই বাড়ি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরে ওই মহিলা বাড়িতে একাই ছিলেন। উল্টোদিকের প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, একজম কেউ এসে সকালের দিকে বৃদ্ধাকে ডাকছিলেন। কিন্তু তার পরে ঘটনা আর তাঁরা জানেন না।

বৃদ্ধার বাড়ির পরিচারিকা সকাল ১১টা নাগাদ এসে ডেকে কোনও সাড়া না পেয়ে চলে যান। আবার কিছুক্ষণ পরে ঘুরে এসে ডেকে সাড়া না পাওয়ায় সন্দেহ হয় পরিচারিকার। তখন তিনি শুভ্রাদেবীর প্রতিবেশীদের পুরো বিষয়টা জানান যে, ডাকলেও কোনও সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। 

প্রতিবেশীরা যখন ঘরের ভিতরে ঢুকতে যান, দরজা নিজের থেকেই খুলে যায়। বাড়ির দোতলায়ে উঠে দেখেন, মহিলা মৃত অবস্থায় মেঝেতে উপুড় হয়ে পড়ে রয়েছেন। তাঁর গলায় গামছা জড়ানো এবং মুখের সামনে একটা চাদর রাখা। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, মহিলাকে হত্যা করা হয়েছে। ঘরের বিভিন্ন জিনিসপত্রও অগোছালো অবস্থায় রাখা ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ। মহিলার ফোনও পাওয়া যাচ্ছে না। বেহালা থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে। বৃদ্ধার মৃত্যুতে আতঙ্ক ছড়ায় এলাকায়।