রাতের বনগাঁগামী শিয়ালদা-বনগাঁ লোকালে বোমাতঙ্ক । একটি পরিত্যক্ত ব্যাগকে ঘিরে ছড়ায় আতঙ্ক । কিছু পাওয়া না গেলেও নিরাপত্তার দিক থেকে কোনওরকম ত্রুটি রাখেনি দায়িত্বশীল পদাধিকারীরা । ট্রেন ফাঁকা করে চলে তল্লাশি । যে ব্যাগ ঘিরে এত হইচই, সেখান থেকে টিফিন বক্স , জলের বোতল ছাড়া কিছুই মেলেনি । 

যাত্রীরা জানিয়েছেন। শুক্রবার রাতে শিয়ালদহ থেকে ৯টা ৪ মিনিটে প্লাটফর্ম ছেড়ে বেরোয় বনগাঁ লোকাল।  মধ্যমগ্রাম স্টেশনে ৯টা ৪৫ নাগাদ পৌছয় ট্রেন। তারপরেই মিহলা কামরা থেকে বোমাতঙ্কের খবর শোনা যায়। নিমেষের মধ্যে সারা ট্রেনে ছড়িয়ে পড়ে সেই খবর। খবর দেওয়া হয় জিআরপিকে। খবর পেয়েই দ্রুত ছুটে আসে রেল পুলিশের আধিকারিক ছাড়াও ক্রতব্যরত কর্মীরা। খবর দেওয়া হয় মধ্যমগ্রাম থানা ,সেফটি সিকিঊরিটি টিম ও  দমকলকে।  যাত্রী সুরক্ষায় নিরাপত্তার বলয়ে ঘিরে ফেলা হয় মধ্যমগ্রাম স্টেশন । 

হয়রানির মধ্যে পড়তে হয় যাত্রীদের। মধ্যমগ্রাম স্টেশনের বোমাতঙ্ক পরে  বিঘ্নিত হয় শিয়ালদা- বনগাঁ সহ হাসনাবাদ শাখার ট্রেন চলাচল ।  ঘটনাস্থলে জিআরপি আরপিএফ এবং শিয়ালদহ বনগাঁ ও হাসনাবাদ শাখার ট্রেন চলাচল বন্ধ হলেও মধ্যমগ্রাম স্টেশন জুড়ে চাঞ্চল্য ছিল রাত  সাড়ে এগারোটা পর্যন্ত। এরপর পুলিশ সবুজ সংকেত দিলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয় । তবে এই প্রথমবার নয়, অতীতেও এরকম বোমাতঙ্কের সাক্ষী থেকেছে পূর্ব রেল। নিয়ে আসা হয়েছে বম্ব স্কোয়াড ও গোয়েন্দা কুকুরকে। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই  কিছু পাযনি পুলিশ। তবে যাত্রী সুরক্ষায় প্রতিবারই কোনও রকম ঝুঁকি নেয়নি রেল কর্তৃপক্ষ।