হাইকোর্টকে বিভ্রান্ত করার দায়ে খেসারত দিতে হবে সব্যসাচী দত্তকে। বুধবার কলকাতা হাইকোর্ট  বিধাননগর পুরনিগমের প্রাক্তন মেয়র সব্যসাচী দত্তকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। জরিমানার অর্থ জমা দিতে হবে পুরনিগমে। এমনই নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি রাজশেখর মান্থা।  

বিধাননগরের সাম্প্রতিক অতীত ঘাঁটলে দেখা যাবে,বিধাননগর পুরনিগমের মেয়র থাকাকালীন সব্যসাচী দত্তের কাছে ৭ টি বেআইনি নির্মাণ নিয়ে অভিযোগ আসে। তিনি কাজগুলি বন্ধের নির্দেশ দেন৷ পরে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন তিনি।  একই সঙ্গে বিধাননগরের মেয়র পদ থেকেও ইস্তফা দেন ৷ ওই পুরনিগমের পরবর্তী মেয়র হন কৃষ্ণা চক্রবর্তী। 

সব্যসাচী দত্ত ওই বেআইনি নির্মাণগুলি ভাঙার দাবি নিয়ে হাইকোর্টে মামলা করেন। গত ২০ জানুয়ারি তাঁর আইনজীবী  আদালতের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন জরুরি ভিত্তিতে মামলাটি শোনার জন্য।  বিচারপতি রাজশেখর মান্থা এদিন মামলাটি শোনেন। সরকারি আইনজীবী অর্ক কুমার নাগ বলেন, আর পাঁচটা সাধারণ মামলার মতোই এটি একটি মামলা। এই মামলাটির বিষয়বস্তু অনুযায়ী জরুরি ভিত্তিতে শোনার মতো কিছু নেই। আদালতও শুনানি চলাকালীন তা অনুধাবন করে।

এদিকে জরুরি ভিত্তির নাম করে দ্রুত মামলার ফয়সালা চাইতে এসে প্যাঁচে পড়ে গেছেন বর্তমান বিজেপি নেতা সব্যসাচী দত্ত। আদালতকে জরুরি ভিত্তির কথা বলে বিভ্রান্ত করার দায়ে ১১ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে এখন সব্যসাচীকে।