বিউ সরকার: সামনেই বিধানসভা ভোট, আর তার আগে এখন অশান্তি চরমে। বেতন বৃদ্ধির দাবিতে প্রতিদিনই বিক্ষোভ করতে দেখা যাচ্ছে সরকারি বিভিন্ন বিভাগের কর্মচারীদের। এবার কর্মসংস্থানের দাবিতে রাস্তায় নামল বাম যুব ছাত্র সংগঠন। ১১ ফেব্রুয়ারি, বৃহস্পতিবার দুপুরে ১০টি বামপন্থী দল একসঙ্গে ধর্মতলা অভিযান করে। তাতেই বাধা দেয় পুলিশ। এই নিয়েই ধস্তাধস্তি শুরু হয়ে সেখানে। পরে তা ভয়ঙ্কর আকার নেয়।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার দুপুরে ১০টি বামপন্থী দল একসঙ্গে জোট বেধে ধর্মতলায় অভিযান করে। কলেজস্ট্রিট থেকে শুরু হয় মিছিলটির যাত্রা। মিছিলটি এসএন ব্যানার্জী রোড দিয়ে যাওয়ার সময় ধর্মতলা ক্রসিংয়ে আটকে বেরিকেড দিয়ে বাধা দেয় পুলিশ। আন্দোলনকারীরা ব্যারিকেড অতিক্রম করার চেষ্টা করলেই পুলিশ বাধা দেয়। এরপরে দু'পক্ষের মধ্যে বচসা শুরু হয়। পরিস্থিতি হাতের নাগালের বাইরে চলে যায়। পুলিশ ও বিক্ষোভকারীদের মধ্যে বাধে সংঘর্ষ।

বিক্ষোভকারীদের বাধা দিতে জলকামান ব্যবহার করা হয়, সেল ফাটানো হয়। পুলিশ লাঠিচার্জ করতেই অপরদিক থেকে পুলিশের দিকে তাক করে ছোড়া হয় ইট, পাথর। ঘটনার জেরে আহত হন বেশ কয়েকজন পুলিশ। বাম-যুব ছাত্রদের মধ্যে অনেকেই গুরুতর আহত হযন সেখানে। সেখান থেকে প্রায় ১০০ জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। এই ঘটনারই প্রতিবাদে ১২ ঘন্টার বনধ ঘোষণা করে বাম যুব ছাত্র সংগঠন।