রাজ্যে চিটফান্ড কাণ্ডে সিবিআই-এর নজরে কলকাতার আরও এক প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার। শুক্রবার সল্টেলেকে সিজিও কমপ্লেক্সে হাজিরা দিলেন গৌতম মোহন চক্রবর্তী। রোজভ্যালিকাণ্ডে তাঁকে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা তলব করেছিলেন বলে জানা দিয়েছে। ঘণ্টা দুয়েক রাজ্যের অবসরপ্রাপ্ত এই আইপিএস অফিসারকে জেরা করেন তদন্তকারীরা।

২০০৭ থেকে ২০১১। চার বছর কলকাতার পুলিশ কমিশনার ছিলেন গৌতম মোহন চক্রবর্তী।  তাঁর আমলেই এ রাজ্যে রোজভ্যালি কাণ্ড প্রকাশ্যে আসে। পুলিশের কাছে বেশ কয়েকটি অভিযোগও জমা পড়ে। কিন্তু তদন্ত কতটা এগিয়েছিল? সিবিআই আধিকারিক তা খতিয়ে দেখছেন বলে জানা গিয়েছে। সেকারণেই শহরের প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার গৌতম মোহন চক্রবর্তীকে তলব করেন তদন্তকারীরা। শুক্রবার সকালে সল্টেলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে হাজিরা দেন গৌতম। প্রায় ঘণ্টা দুয়েক ধরে চলে জিজ্ঞাসাবাদ। 

আরও পড়ুন: নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে আরও তীব্র আন্দোলন, কর্মসূচি ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

এর আগে রোজভ্যালি কাণ্ডে কলকাতার আর এক প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে জেরা করতে চেয়ে নোটিশ পাঠায় সিবিআই। তাঁকেও সল্টেলেক সিজিও কমপ্লেক্সে হাজিরাও দিতে বলা হয়। কিন্তু হাজিরা এড়িয়ে যান রাজীব কুমার।  বরং তদন্তকারীদের কাছে আরও সময় চান তিনি। সিজিও কমপ্লেক্সে জেরা হয় কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারের ট্রাভেল এজেন্ট ও দেহরক্ষীকে। 

আরও পড়ুন: 'গণতান্ত্রিক কাঠামোর অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল', মুখ্যমন্ত্রীকে বিঁধলেন রাজ্যপাল

উল্লেখ্য, রাজ্যে চিটফাণ্ডের তদন্তে বিশেষ তদন্তকারী দল বা সিট গঠন করেছিল সরকার। সেই তদন্তকারীর দলের প্রধান ছিলেন রাজীব কুমার। সিবিআই আধিকারিদের বক্তব্য, সিট যখন সারদা কাণ্ডের তদন্ত করছিল, তখন বাগুইআটি থানায় অর্থলগ্নি সংস্থা রোজভ্যালির বিরুদ্ধেও অভিযোগ দায়ের করা হয়। কিন্তু সেই অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ কোনও ব্য়বস্থা নেয়নি। কিন্তু কেন? তা জানতেই রাজীব কুমারকে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা তলব করেন বলে জানা গিয়েছে।