ঝড়ের গতিতে এগোচ্ছে সারদা কাণ্ডের তদন্ত। দিন কয়েক আগেই সিবিআই-এর তরফে জানানো হয়েছিল সারদা কাণ্ডে রাজীব কুমার প্রদেয় তথ্যের ভিত্তিতেই জেরা করা হবে সুদীপ্ত সেন ও দেবযানী বন্দ্যোপাধ্যায়কে। সেই দিনক্ষণ ঘোষণা হওয়ার আগেই সিবিআই সূত্রের খবর ৫ জুলাই  সিজিও কমপ্লেক্সে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে শুভাপ্রসন্নকে। তাঁর সঙ্গে  ডাকা হয়েছে শিবাজী পাঁজাকেও।

এই নিয়ে তিনবার সারদাকাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে চলেছেন শুভাপ্রসন্ন। কিন্তু কেন, তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগটা ঠিক কী? দেবকৃপা প্রাইভেট লিমিটেড নামক কোম্পানিটি শুভাপ্রসন্ন ৫ কোটি ৩০ লক্ষ টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দিয়েছিল দিয়েছিল। ২০১০ সালে আপলিঙ্কিং অনুমতি পেলেও দেবকৃপার চ্য়ালেন সময় এখনও কখনও সম্প্রচার করেনি। অন্য দিকে শুভাপ্রসন্নর একটি ছবির প্রদর্শনী নিয়েও জিজ্ঞেসাবাদ করতে পারে সিবিআই। তাঁর সঙ্গেই শিবাজী  পাঁজাকেও এদিন ডাকা হচ্ছে অবশ্য রোজভ্যালি মামলায়।

প্রসঙ্গত অতীতে ইডি সারদা কাণ্ডে শুভাপ্রসন্নের সম্পত্তির হিসেব নিয়েছ। বিস্তর জিজ্ঞাসাবাদের পাশাপাশি সারদা মামলায় তাঁর ৪০টি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ক্রোক করে ইডি। ইডি সূত্রে খবর ছিল ওই অ্যাকাউন্টে মোট ৬০ লক্ষ টাকা ছিল। সেই অ্যাকাউন্টে লেনদেন আজও বন্ধ।

আরও পড়ুনঃ অবসর ভেঙে ফিরলেন সিবিআই অফিসার, সারদার জাল গোটানোর দিনক্ষণ ঠিক
রাজীবই অস্ত্র, এবার সুদীপ্ত সেন ও দেবযানীর মুখোমুখি বসছে সিবিআই

আপাতত সারদা কাণ্ডের জাল গোটাতে বদ্ধপরিকর সিবিআই। অবসর ভেঙে ফিরিয়ে আনা হয়েছে প্রথম অফিসার প্রভাকর নাথকে। পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের অনুপিস্থিতে জিজ্ঞাসাবাদের সম্মুখীন হয়েছেন দিলীপ হাজরা অর্ণব ঘোষের মতো অফিসাররা। সেই  জেরায় প্রাপ্ত তথ্যকে কাজে লাগিয়ে সিবিআই কথা বলেছে রাজীব কুমারের সঙ্গেও। এখন সব তথ্য হাতে নিয়ে শেষ কয়েকটা চাল দিতে মরিয়া সিবিআই।