ওমর আবদুল্লা! সোশ্যাল মিডিয়ায় জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্য়মন্ত্রীর ছবি দেখে হতবাক সকলেই।  ছবি দেখে চিনতে পারেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। ওমর আবদুল্লার চেহারা দেখে দুঃখপ্রকাশ করেছেন তিনি। এদিকে আবার বন্দিদশা থেকে মুক্তি না পাওয়া পর্যন্ত ন্যাশনাল কনফারেন্সের এই নেতা দাড়ি না কাটার পণ করেছেন বলে পরিবার সূত্রে খবর।

গত বছরের অগাস্ট মাসে যখন কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপ করা হয়, তখন প্রাক্তন ওমর আবদুল্লাকে বন্দি করা হয়েছে। পাঁচ মাস কেটে গেলেও এখনও বন্দিদশা ঘোচেনি তাঁর। প্রকাশ্যে আসার তো প্রশ্নই নেই। বর্হিবিশ্বের সঙ্গে এখন আর কোনও যোগাযোগই নেই ওমরের। প্রথম প্রথম তিনি বা তাঁর রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ মেহবুবা মুফতি বন্দিদশায় কী করছেন, সে সংক্রান্ত খবর সংবাদমাধ্যম থেকে জানা যেত। কিন্ত সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কার্যত লোকচক্ষুর আড়ালেই চলে গিয়েছেন জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। 

জানা গিয়েছে, শনিবার উপত্যকার প্রশাসনের তরফে ওমর আবদুল্লার একটি ছবি প্রকাশ করা হয়। সেই ছবিটিই ভাইরাল হয়ে দিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ছবি দেখে টুইট করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি লিখেছেন, 'এই ছবিতে ওমরকে চিনতেই পারিনি আমি।  খুব কষ্ট হচ্ছে আমার। অত্যন্ত দুর্ভাগ্য়ের বিষয় যে, আমাদের গণতান্ত্রিক দেশেও এমনটা হচ্ছে। এসব কবে শেষ হবে?' 

 

 

ওমর আবদুল্লার কেমন ছবি প্রকাশ্যে এসেছে? ছবিতে দেখা যাচ্ছে, তাঁর পাকা দাড়ি প্রায় বুক ছুঁয়ে ফেলেছে। নীল রংয়ের একটি জ্যাকেট পরে বরফের মাঝে দাঁড়িয়ে আছেন ওমর। চেহারায় আগের সেই জেল্লা উধাও, বরং দু'চোখে বিষন্নতায় ছাপই স্পষ্ট।  কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর ছবি দেখে অনেকেই বলেছেন, বন্দিদশায় তাঁর বয়স যেন এক ধাক্কায় অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে।