করোনাভাইরাসের উপসর্গ পেতেই আইডি  হাসপাতালে ভর্তি করা হল এক মেদিনীপুরবাসীকে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন এই সন্দেহে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হল পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ভগবানপুরের এক বাসিন্দাকে। যদিও ওই ব্য়াক্তি নিজে আসতে রাজি হননি। প্রশাসনের তৎপরতায় কার্যত তাঁকে নিয়ে আসা হয় বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে।

আরও পড়ুন, বিকেলের পরই ব্রজবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা, এখনই কাটছে না দুর্যোগ

সূত্রের খবর, পেশায় ব্যবসায়ী বছর পয়তাল্লিশের ওই ব্যক্তির নাম গোবিন্দ প্রসাদ সাউ। বাড়ি ভগবানপুর থানার বনমালীপুর গ্রামে। কোম্পানির ভ্রমনে তিনি ইন্দোনেশিয়া গেছিলেন দিন পনেরো আগে। ফিরেছেন দিন কয়েক হল। গত দুদিন জ্বর ও কাশিতে ভুগছিলেন এই গোবিন্দ বাবু। তাই বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্য দফতরের উদ্যোগে তাঁকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য নিয়ে যাওয়া হল কলকাতা। প্রথমে উনি যেতে রাজি হননি। পরে পুলিশ, স্বাস্থ্য দফতরের কর্মী ও প্রশাসনের লোকজন বোঝানোর পর অ্যম্বুলেন্সে চেপে সস্ত্রীক  কলকাতার উদ্যেশ্যে রওনা দেন তিনি।

আরও পড়ুন, এবার আন্তর্জাতিক নারীদিবসেও নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা


প্রসঙ্গত উল্লেখ্য়, অপরদিকে ফেব্রুয়ারি মাসের গোড়ার দিকে,চিন ফেরত এক মেদিনীপুরবাসীকে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তাঁর শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা যায়। সন্দেহের বশে তিনি নিজেই দেখাতে যান বেলেঘাটা আই হাসপাতালে। চিকিৎসকেরা তাঁকে আইসোলেশনে রেখে তাঁর নমুনা পরীক্ষা করেন। এব্য়াপারে খুব সতর্ক রাজ্য় তথা কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য় মন্ত্রক। তাই পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ভগবানপুরের   গোবিন্দ প্রসাদ সাউকেও আপাতত সমস্ত পরীক্ষার মধ্য় দিয়ে যেতে হবে।
 

আরও পড়ুন, আপাতত স্বস্তিতে পোল্যান্ডের ছাত্র কামিল, দেশে থাকার অনুমতি ১৮ মার্চ