বর্ষবরণের রাতে, শহর কলকাতার ৫ টি হোটেলের উপর  মিউজিক এবং ডিজে বাজানোয় নিষেধাজ্ঞা জারি করল আদালত। যে সমস্ত প্রতিষ্ঠান লাইসেন্স ফি জমা দেয়নি, তারা শুধুমাত্র আজকের জন্য় নয়, পরবর্তী সময়েও নতুন লাইসেন্স ছাড়া কোনরকম মিউজিক বাজাতে পারবে না। এই পাঁচটি হোটেলগুলি হল হায়াত রিজেন্সি, পার্ক, হোটেল হিন্দুস্থান, হোটেল ওটু, ফাইভ ম্য়াডম্য়ান।

আরও পড়ুন, হাসপাতালে ঝুলল 'লক আউট' নোটিস, বিপাকে রোগী ও পরিবারের লোকেরা

ভারতের মোট ৩৪২ টি মিউজিক সংস্থার তরফে পিপিএল অর্থাৎ ফোনোগ্রাফিক পারফরমেন্স লিমিটেড  এর এক মামলায় এই স্থগিতাদেশ দিয়েছে বারাসত জেলা আদালত। এ ব্যাপারে পার্ক হোটেল-এর এক মুখপাত্রর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কোনও বিবৃতি পাওয়া যায়নি। তবে হোটেলস অ্যান্ড রেস্টুরেন্টস অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া-র প্রাক্তন সভাপতি রাজেশ মিশ্র  জানিয়েছেন,রেকর্ডেড মিউজিক এবং ডিজে-র উপর কখনও কোনও কপিরাইট নেই। এ ব্য়াপারে কেউই লাইসেন্স ফি দাবি করতে পারে না। তবে যদি কেউ বাড়ির পার্টিতে ডিজে বাজায়, সে ক্ষেত্রে লাইসেন্স ফি দেওয়ার বিষয়ে তিনি কিছু শোনেননি। 

আরও পড়ুন, তুষারপাতের সম্ভাবনা দার্জিলিং-এ, বছর পড়লেই বর্ষা শুরু ঝমঝমিয়ে

পিপিএল -এর আঞ্চলিক ম্য়ানেজার সুপ্রিয় মুখোপাধ্য়ায় জানিয়েছেন, তাঁদের যে সমস্ত প্রতিষ্ঠান পাওনা টাকা দেয়নি মূলত তাদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। গত বছর মুম্বই হাইকোর্ট ,সেই  সমস্ত প্রতিষ্ঠানকে রেকর্ডেড মিউজিক, ডিজে ইত্যাদি বর্ষবরণের রাতে বাজানোর উপর  স্থগিতাদেশ দিয়েছিল। তিনি আরও জানিয়েছেন, তারা এবছরও মুম্বই হাইকোর্টেও গিয়েছিলেন। সেখানে আদালত ২৫ ডিসেম্বর ও ৩১ ডিসেম্বরের ক্ষেত্রে একই স্থগিতাদেশ দিয়েছে। এরপরেই তারা পাঁচটি হোটেলের বিরুদ্ধে বারাসত জেলা আদালতে গেলে বিচারক ওই হোটেলগুলির বিরুদ্ধে একই স্থগিতাদেশ দেন। পাঁচ তারা হোটেলের ক্ষেত্রে, লাইসেন্স ফি ১৮০,০০০ টাকা এবং ব্য়াঙ্কয়েটের ক্ষেত্রে ফি ৪৬,০০০ টাকা।