তালিকাটা কিন্তু ক্রমশই লম্বা হচ্ছে। এবার আক্রান্ত হলেন দলের পলিটব্যুরো সদস্য তথা প্রাক্তন সাংসদ মহম্মদ সেলিম। সোমবার সন্ধ্যায়  টুইট করে এ খবর  জানিয়েছেন তিনি নিজেই। ফের করোনা থাবার বসাল সিপিএমের অন্দরে।

গত মাসে হাসপাতালে থেকে বাড়ি ফিরেছেন সিপিএম নেতা অশোক ভট্টাচার্য। করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি দলের আরও দুই নেতা অনাদি শাহু ও শ্যামল চক্রবর্তী। জানা গিয়েছে, চিকিৎসার ভালো সাড়া দিলেও,  শারীরিক সমস্যায় ভুগছেন অনাদি। তাঁকে নিয়ে নিশ্চিন্ত হতে পারছেন না চিকিৎসকরা। আর শ্যামল চক্রবর্তী? সূত্রের খবর, সত্তরোর্ধ্ব এই বাম নেতার শারীরিক অবস্থা কিছুটা আশঙ্কাজনক। তাঁর চিকিৎসা চলছে বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে। এরইমধ্য়ে আবার আক্রান্ত হলেন সিপিএমের পলিটব্যুরোর সদস্য ও রায়গঞ্জের প্রাক্তন সাংসদ মহম্মদ সেলিম।

 

বস্তুত, মধ্য কলকাতার যে এলাকা রাজ্যে সিপিএমে সদর দপ্তর, সেই আলিমুদ্দিন স্ট্রিট ও লাগোয়া এলাকায় করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে যথেষ্টই। সম্প্রতি বেশ কয়েকবার সেখানে দলের কার্যালয়ে গিয়েছিলেন সেলিম।  তাঁর সঙ্গে বৈঠকও করেছেন রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র-সহ দলের শীর্ষনেতারাও। ফলে আতঙ্ক বেড়েছে আরও। মহম্মদ সেলিমে দ্রুত সুস্থতা কামনা করেছে সিপিএমের কর্মী-সমর্থকরা।