সোমবার সকাল থেকেই কলকাতার আকাশ আংশিক মেঘলা। আলিপুর হাওয়া দফতর জানিয়েছে, বুধবার ওড়িশার পারাদ্বীপ ও পশ্চিমবঙ্গের সাগরের মধ্যবর্তী উপকূলবর্তী এলাকায় আছড়ে পড়তে পারে ঘূ্র্ণীঝড় যশ।  সেই কারণে এখন থেকেই উপকূলবর্তী এলাকায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে। কোভিড বিধি মেনেই স্থানীয় বাসিদ্ধান্তের উদ্ধার কাজে জোর দেওয়া হয়েছে। সোমবার থেকেই গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে বৃষ্টি শুরু হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। 

আরও পড়ুন, ঘুর্ণীঝড় যশ মোকাবিলায় তৎপর মুখ্যমন্ত্রী মমতা, কাজ শুরু করে দিয়েছে বায়ু সেনা 

ইতিমধ্য়েই  বঙ্গোপসাগরে সুনির্দিষ্ট হয়েছে নিম্নচাপ। রবিবার দুপুরে আলিপুর আবহাওয়া দফতরের অধিকর্তা সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ২২ তারিখ যেটি  পূর্ব মধ্যে বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে সেটি রবিবার সকালে গভীর নিম্নচাপই পরিণত হয়েছে । এখন অবস্থান বঙ্গোপসাগরের উপরে ৫৯০ কিমি দূরে রয়েছে। পারদীপ থেকে ও দীঘা থেকে ৬৭০ কিমি দূরে রয়েছে।  আগামীকাল সকালে এটি ঝড়ে পরিণত হবে। তারপর উত্তর পশ্চিমবঙ্গ দিকে এগিয়ে যাবে। ২৫ তারিখ এটি আরও শক্তি বাড়িয়ে উত্তর পশ্চিম দিকে এগিয়ে উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গ বঙ্গের উপকূলে ঢুকবে।'

আরও পড়ুন, সুপার সাইক্লোন 'যশ'-র মোকাবিলায় কলকাতা বিমানবন্দর, কড়া নজরদারি উপকূলরক্ষী বাহিনীরও 


তিনি আরও বলেছেন, 'পারদীপ ও সাগর দিয়ে ২৬ তারিখ সন্ধ্যে বেলায় পার করবে। এর ফলে ২৫ তারিখ দুই মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনার, হাওড়া, হুগলিতে বৃষ্টি শুরু হবে। ২৬ তারিখ কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, দুই ২৪ পরঙ্গনাতে ভারী বৃষ্টি হবে। ২৭ তারিখ উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টি হবে। এছাড়াও পশ্চিমের জেলা গুলোতে ২৭ তারিখ ভারি বৃষ্টি হবে। ২৪ তারিখ বঙ্গোপসাগরে উপকূলে ৫০ থেকে ৬০ কিমি বেগে হাওয়া বইবে। ২৫ তারিখ আরও বাড়বে এবং ২৬ তারিখ এর গতি থাকবে ১১০ কিমি প্রতি ঘন্টা। যখন স্থলভাগে ঝড় ঢুকবে তখন গতি থাকবে ১৫০ কিমি প্রতি ঘন্টা। মৎসজীবিদের সমুদ্রে যেতে সম্পূর্ণভাবে নিষেধ করা হয়েছে।' 

আরও পড়ুন, আসছে সুপার সাইক্লোন 'যশ', পাম্পিং স্টেশন পরিদর্শনে নামল কলকাতা পুরসভা, দেখুন ছবি 

সোমবার বাংলায় আদ্রতাজনিত কারণে তীব্র অস্বস্তি লাগবে। আবহাওয়া দফতরে খবর অনুযায়ী,সোমবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স।  স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি উপরে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা  ২৬.৩ ডিগ্রী।  অপরদিকে এদিন শহরের বাতাসে জলীয়বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৯৩ শতাংশ এবং সর্বনিম্ন ৪৮ শতাংশ বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।রবিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬.৪ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স।  স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি উপরে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা  ২৯.২ ডিগ্রী। স্বাভাবিকের থেকে ৩ ডিগ্রি উপরে। অপরদিকে এদিন শহরের বাতাসে জলীয়বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৮৯ শতাংশ এবং সর্বনিম্ন ৫১ শতাংশ বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।আবহাওয়া দফতরে খবর অনুযায়ী,শনিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬.৭ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স।  স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি উপরে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা  ২৯.০ ডিগ্রী।  স্বাভাবিকের থেকে ৩ডিগ্রি উপরে।