বিতর্কে জল ঢালতে অবশেষে নিজেই মুখ খুললেন বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান। টুইটারে  ভিডিয়ো পোস্ট করে তিনি জানান, গুজবে কান দেবেন না। অ্যাস্থমার অ্যাটাক থেকেই হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছিল তাঁকে। সম্ভবত ডাস্ট অ্যালার্জি থেকেই তীব্র শ্বাসকষ্ট হয়েছিল। যার জেরে হাসপাতালে ছুটতে হয় তাঁকে। তবে সবার ভালো বাসা ও আশীর্বাদে তিনি এখন সুস্থ। শীঘ্রই তাঁর কেন্দ্রের খবর নিতে বেরোবেন। সংসদ শুরু হওয়ায় যাবেন দিল্লিতে। 

শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় সোমবারই হাসপাতাল থেকে বাড়িতে  ফেরেন বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহান। গতকাল সন্ধেতেই বাইপাসের হাসপাতাল থেকে ঘরে ফেরেন তিনি।  যদিও তাঁর অসুস্থতা নিয়ে শুরু হয়েছে জোর বিতর্ক। সূত্রের খবর, ফুলবাগান থানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফে ড্রাগ ওভারডোজের মামলা হয়েছে। তাই শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা না অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ সেবন কী কারণে নুসরত হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। 

 

Thank you all for your wishes, prayers, calls & messages. ❤️ pic.twitter.com/kTvCGcchEf

— Nusrat (@nusratchirps) November 19, 2019  

 

নুসরতের ঘনিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, রবিবার স্বামী নিখিল জৈনের জন্মদিনে আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়েন নুসরত।  বাড়িতে আনন্দ-উল্লাসের মাঝেই গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তড়ঘড়ি তাঁকে বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরিচিতদের দাবি, প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট হওয়ায় তাঁকে দ্রুত আইসিইউতে ভরতি করেন চিকিৎসকরা। পরে চিকিৎসকরা জানান, চিকিৎসায় সাড়া দিয়েছেন তৃণমূলের অভিনেত্রী সাংসদ। সোমবারের মধ্যেই তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল হয়ে যায়। সেকারণে তাঁকে সাধারণ বেডে দিয়ে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বিকালের পরই চিকিৎসকদের ছাড়পত্র পাওয়ায় বাড়ি যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় পরিবার। 

তবে তাঁর বাড়ি ফেরার পরও পিছু নিয়েছে বিতর্ক। ঠিক কী কারণে নুসরত অসুস্থ হয়েছিলেন তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। জনগণের প্রতিনিধি ছাড়াও একজন অভিনেত্রী হওয়ায় তাঁর আরোগ্য কামনা করেছেন নেটিজেনরা। তবে হাসপাতাল যাই বলুক না কেন, নুসরতের অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খাওয়া নিয়ে কোনও কথা বলেননি পরিবারের লোকজন।  তাঁদের দাবি, ছোট থেকেই শ্বাসকষ্টজনিত অসুখে ভুগতেন নুসরত। আবহাওয়া পরিবর্তন হওয়ায় সেই শ্বাসকষ্টজনিত রোগেরই শিকার হয়েছেন তিনি। এইসব বিতর্কের জল্পনা ওড়াতেই অবশেষে মুখ খুললেন তৃণমূলের অভিনেত্রী সাংসদ।