তিন তলার ছাদ থেকে পড়ে ৬ বছরের শিশুর মৃত্যু।ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে ছাদ থেকে লাফ দিয়ে বাবাও আহত হয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে বরানগরের মান্না পাড়া এলাকায়।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ছয় বছরের অংশুমান দাস নিজের বাড়ির পাশেই মামা বাড়ির তিনতলা ছাদে বাবার সাথে খেলছিলো।  খেলতে খেলতে হঠাৎ ছাদের ধারে পৌঁছে যায় ছোট্ট অংশু। সেখান থেকে ছাদের রেলিং টপকে নিচে পড়ে যায় সে। পাশেই দাঁড়িয়েছিল বাবা অভিজিৎ দাস। সাথে সাথেই ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে নিচে লাফ দেন তিনিও। ছেলে কে বাঁচাতে পারেননি। 

ছোট্ট অংশু আর বাবা অভিজিৎ বাবুকে গুরুতর জখম অবস্থায় স্থানীয়রা বরানগর স্টেট জেনারেল হসপিটালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসকেরা শিশুটিকে মৃত বলে ঘোষণা করে। এই মুহূর্তে অভিজিৎ বাবুও আশঙ্কাজনক অবস্থায় কোলকাতার পি জি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার পর সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন।মর্মান্তিক এই ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে বরানগরের মান্না পাড়া এলাকায়। শিশুটির মৃতদেহটি ময়না তদন্তে পাঠিয়েছে বরানগর থানার পুলিশ।