পার্ক সার্কাসে সিএএ প্রতিবাদে মৃত মহিলার বাড়িতে গেলেন ফিরহাদ হাকিম। বেশ কিছুক্ষণ সেখানে থেকে মৃতের পরিবারকে সমবেদনা জানান কলকাতার মেয়র। গতকালই তৃণমূলের তরফে মৃতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান দলের পরিষদীয় দলনেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায়।   

করোনা মোকাবিলায় সতর্ক কলকাতা চিড়িয়াখানা, কড়া নজরদারি বিদেশিদের উপরে
 
গতকালই পার্ক সার্কাসে সিএএ বিরোধী আন্দোলনে মহিলার মৃত্যু নিয়ে পার্থবাবু বলেন, কেউ যদি মারা যায় সেটা দুঃখের। যদি ভেবে থাকেন, প্রতিবাদ করে মারা গিয়ে থাকলে বিজেপি সরকারের ঘুম ভাঙবে, তা হবার নয়। আমার মনে হয়, স্বাধীনতার পরে এরকম বর্বর অমানবিক সরকার দেশে এসেছিল কিনা তা নিয়ে সন্দেহ আছে। 

স্কুল ফাইনালে এবার মাদ্রাসায় বসতে চলেছে ৭০ হাজার হিন্দু পড়ুয়া

একটানা ২৬ দিন ধরে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন সিএএ বিরোধী আন্দোলন চলছে পার্ক সার্কাসে।  শনিবার রাতে আচমকাই বুকে যন্ত্রণা শুরু হয়  এক পঞ্চাশোর্ধ এক মহিলার। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় ওই আন্দোলনকারীর। গত ৭ ডিসেম্বর থেকে ওই অবস্থানে ছিলেন বছর সাতান্ন-র সিআইটি রোডের বাসিন্দা সামিদা খাতুন। 

নিখোঁজ হার্ট স্পেশালিস্ট ফিরলেন 'স্বামীজি'র বেশে, যার কাহিনি জানলে অবাক হতে হয়

প্রতিবাদকারীরা জানিয়েছেন, প্রথমে ইসলামিয়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। সেখান থেকে চিত্তরঞ্জন হাসপাতালে। সেখানে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। এক আন্দোলনকারীর দাবি, সামিদা খাতুনের উচ্চ রক্তচাপ এবং ডায়াবিটিস ছিল। অবস্থান মঞ্চ থেকেই তিনি অসুস্থ হন। যদিও সামিদার পরিবারের তরফ থেকে এখনও পর্যন্ত কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে সহ আন্দোলনকারীর মৃত্যুতে পার্ক সার্কাসের আন্দোলন মঞ্চে এখন শোকের ছায়া। তাই সকলেই স্থির করেছেন কোনও স্লোগান ছাড়াই অবস্থান বিক্ষোভ করবেন।