'এই আনন্দ উৎসব অতিমারীর খারাপ প্রভাবের হাত থেকে সকলকে রক্ষা করুক। আমাদের সকলের জন্য নিয়ে আসুক শান্তি, সমৃদ্ধি, এবং সুখ।'  নবমীর সকালে রাজ্যবাসীকে 'বিজয়া'র শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধানখড়।

করোনা আতঙ্কের মাঝে দুর্গাপুজো আদৌ হবে তো? মামলা গড়িয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টে। আদালতের নির্দেশে এবছর রাজ্যের ছোট-বড় সমস্ত মণ্ডপে বহিরাগত দর্শকদের প্রবেশ নিষেধ। মণ্ডপের চারপাশে ব্যারিকেড, ঝুলছে 'নো-এন্ট্রি' বোর্ড। এ বছর কার্যত ঘরবন্দি হয়েই পুজো কাটিয়ে দিলেন বেশিরভাগ বাঙালি। খাতায়-কলমে আজ অর্থাৎ রবিবার নবমী।  তিনি অনুযায়ী কিন্তু সকালে দশমী পড়ে দিয়েছে। টুইট করে 'বিজয়া' শুভেচ্ছাও জানালেন রাজ্যপাল জগদীপ ধানখড়।

 

এর আগে সপ্তমীতেও রাজ্যবাসী শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট করেছিলেন তিনি। লিখেছিলেন, 'মা দুর্গা সমস্ত দুঃখ, যন্ত্রণা দূর করবেন। মা দুর্গা সবসময় তাঁর ভক্তদের সাহস জোগান। ভয়কে দূরে সরিয়ে চলতে সাহায্য করেন। মায়ের কাছে প্রার্থনা সমস্ত অশুভ শক্তিকে সরিয়ে সকলকে ভয় মুক্ত করুন।'

 

 

শনিবার অষ্টমীর দিন সস্ত্রীক বেলুড় মঠে গিয়ে পুষ্পাঞ্জলীও দেন তিনি।