আর কিছুক্ষণের মধ্যেই শুরু হতে চলেছে একুশে জুলাইয়ের সমাবেশ। সকাল থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ধর্মতলার উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছেন তৃণমূলের কর্মীসমর্থকরা। ইতিমধ্যেই ধর্মতলা চত্বরে এসে উপস্থিত হয়েছেন তৃণমূলের কর্মীসমর্থকরা। 

তৃণমূলের কর্মীসমর্থকরা দাবী করেছিলেন এবারের লোকসভা নির্বাচনের আশানুরূপ ফল না হলেও এবারের একুশে জুলাইয়ের সমাবেশে রেকর্ড সংখ্যক সমর্থক হাজির করা হবে। সেইমতো ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে কলকাতা পুলিশের তরফেও। সমর্থকদের ভিড় সামলাতে ইতিমধ্যেই মোতায়েন করা পাঁচ হাজার পুলিশকর্মী। ১৪টি জায়গায় রাখা হয়েছে অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা, রয়েছে ট্রমা ইউনিট। চার জায়গায় করা হয়েছে ব্যারিকেড, তিন জায়গায় মোতায়েন করা হয়েছে ক্যুইক রেসপন্স টিম, ১০টি জায়গায় বসানো হয়েছে ড্রপ গেট, রয়েছে বম্ব স্কোয়াড। রয়েছে সিসিটিভি ক্যামেরা। সেইসঙ্গে দ্রোনের সাহায্যেও গোটা পরিস্থিতির ওপর নজরদারি করা হবে। রাস্তার মোড়ে মোড়ে রয়েছে পিকেটিং।  মেট্রো এবং জলপথে বাড়তি নজরদারির ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

পাশাপাসি শহরের রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা তৃণমূল কর্মীসমর্থকদের জন্য শহরের একাধিক স্থানে অস্থায়ী কেন্দ্র তৈরি করে হয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে যাবতীয় ব্যবস্থা নিয়ে প্রস্তুত কলকাতা পুলিশ। আর সমস্ত বিষয়টি তদারকি করছেন পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। এই মুহূর্তে সমাবেশ চত্বরে উপস্থিত রয়েছেন পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা, যুগ্ম পুলিশ কমিশনার জাভেদ শামিম-সহ কলকাতা পুলিশের প্রায় সব উচ্চপদস্থ কর্তারাই।