সকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করল না যাদবপুর। জেএনইউতে ছাত্র-শিক্ষকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে রবিবার রাতেই মিছিল বের করল যাদবপুর ইউনিভার্সিটির পড়ুয়ারা। এদিন মিছিল থেকেই উঠল আজাদির স্লোগান। জওহরলাল নেহরু ইউনিভারসিটিতে হামলার জন্য় গেরুয়া ব্রিগেডকেই কাঠগড়ায় তোলে ছাত্ররা।

ছাত্রদের অভিযোগ,  জেএনইউতে ফি বৃদ্ধি সহ, এনআরসি, সিএএ-এর মতো একাধিক ইস্যুতে মোদী সরকারের সঙ্গে বিবাদে গিয়েছিল ছাত্ররা। সেকারণে শাসক দলের চক্ষুশূল হয়েছে তারা। সে কারণেই এবিভিপি-র লোকজন এদিন বাম ছাত্রছাত্রীদের ওপর হামলা চালায়। শিক্ষিকা  বাঁচাতে গেলে তাঁকে বেধড়ক মারধর করা হয়।  

রবিবার ফি বৃদ্ধির বিরোধিতায় জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রীদের বিক্ষোভ চলাকালীন এবিভিপি-র বিরুদ্ধে হামলা চালানোর অভিযোগ ওঠে। হামলায় মাথা ফেটেছে ছাত্র সংসদের সভানেত্রী ঐশী ঘোষের। এছাড়াও হামলা আক্রান্ত হয়েছেন আরও অনেক ছাত্রছাত্রী। অভিযোগ, এ দিন সন্ধ্যার পর আচমকাই জেএনইউ ক্যাম্পাসের মধ্যে ঢুকে লাঠি, ব্যাট নিয়ে হামলা চালায় বহিরাগতরা। ঐশীর পাশাপাশি গুরুতর ভাবে আহত হইয়েছেন অধ্যাপিকা সুচরিতা সেন। জহওরলাল ইউনিভারসিতি স্টুডেন্টস ইউনিয়নের সভানেত্রী ঐশী ঘোষ বর্তমানে এইএমসের ইনটেনসিভ কেয়ারে চিকিৎসাধীন।

হামলাকারীদের মুখ ঢাকা ছিল বলেও অভিযোগ। হামলা চালানোর পর বহিরাগতরা ক্যাম্পাস ছেড়ে নিশ্চিন্তে বেরিয়ে যায় বলেও অভিযোগ। হামলা চলার সময়কার বেশ কিছু ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে মুখে কাপড় বেঁধে হাতে লাঠি নিয়ে জেএনইউ ক্যাম্পাসের হোস্টেলের মধ্যে আলো নিভিয়ে রীতিমতো তাণ্ডব চালাচ্ছে কয়েকজন। সোশ্য়াল মিডিয়ায় ছড়িয়ে গেছে সেই ভিডিয়ো। এদিন  তারই প্রতিবাদে যাদবপুর ইউনিভার্সিটির ৪ নম্বর গেট থেকে মিছিল বের হয়। যাদবপুর এলাকা ঘুরে ফের যাদবপুরের চার নম্বর গেটের কাছে এসে থামে মিছিল। 

ঘটনার পর রাতেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের অফিসিয়াল টুইটারে লেখেন, জেএনইউতে ছাত্র, শিক্ষকদের ওপর বর্বরতার তীব্র নিন্দা জানাই। এই জাতীয় জঘন্য কাজ বর্ণনা করার জন্য পর্যাপ্ত কোনও শব্দ নেই। এটা আমাদের গণতন্ত্রের জন্য লজ্জাজনক ঘটনা।