যুবকের হাড় হিম করা ঘটনা জুড়ে চাঞ্চল্য় ছড়ালে কলকাতা মেট্রো পরিষেবায়। তবে এবার কোনও আত্মঘাতির ঘটনা পুনরাবৃত্তি ঘটেনি। তবে যেটা হয়েছে , জীবনকালে সেই অভিজ্ঞতা কারও সচরাচর হয়নি। রবিবার রাতে, মহাত্মা গান্ধী রোড স্টেশনের লাইনে সটান নেমে লাইন ধরেই গিরীশ পার্ক স্টেশনের দিকে দৌড়লেন এক যুবক। সুড়ঙ্গের মধ্যে দিয়ে দৌড়ে পৌঁছে গেলেন গিরীশ পার্ক স্টেশনে। তারপর  স্মার্ট গেট টপকে স্টেশন থেকে বেরিয়ে পুরো উধাও হয়ে গেলেন ওই যুবক। রবিবার রাতে কলকাতা মেট্রোর এই ঘটনায়, গভীর রাত পর্যন্ত ওই যুবকের পরিচয় জানা যায়নি। এখনও তিনি ধরাও পড়েননি। 

আরও পড়ুন, চার মাস গ্রেফতার নয় মুকুলকে, তৃণমূল বিধায়ক খুনের ঘটনায় নির্দেশ হাইকোর্টের

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন,রবিবার রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ এমজি রোড স্টেশনের স্মার্ট গেটে টোকেন না দিয়েই, গেট টপকে মেট্রোতে উঠতে যান ওই যুবক। কিন্তু তাঁকে ধরে ফেলেন দায়িত্বে থাকা আরপিএফ জওয়ানরা। সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় স্টেশন মাস্টারের ঘরে। এর পরেই ফাইন দেওয়ার নাম করে স্টেশন মাস্টারের ঘর থেকে বেরিয়ে আসেন ওই যুবক। এরপর এমজি রোড স্টেশনের লাইনে নেমে ক্য়ানাল ধরে দৌড়ানো শুরু করেন ওই যুবক গিরীশ পার্ক স্টেশনের উদ্দেশে।

আরও পড়ুন, জেএনইউয়ের ঘটনা মনে করিয়ে দিচ্ছে সেদিন প্রেসিডেন্সিতে তৃণমূলের হামলার কথা

এই ঘটনটার পর  একই সঙ্গে মেট্রোর সুরক্ষা ব্যবস্থা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। তবে মেট্রো কর্তৃপক্ষ সরকারি ভাবে কোনও বিবৃতি না দিলেও সংস্থার আধিকারিকদের একাংশ এই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে নিয়েছেন। তাঁদের বক্তব্য, মহাত্মা গান্ধী রোড স্টেশন থেকে ওই যুবক সুড়ঙ্গে ঢোকার পরেই, গিরীশ পার্ক স্টেশনের নিরাপত্তাকর্মীদের সতর্ক হওয়া উচিত ছিল। এর ফলে মেট্রো কর্তৃপক্ষের তরফে,  দ্রুত বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করা হয়। যার জেরে, কিছুক্ষণ বন্ধ থাকে  মেট্রো পরিসেবা।