নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে গত এক সপ্তাহ ধরেই সেজে উঠেছিল শহর কলকাতা। কোথাও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে, কোথাও আবার ক্লাবে বিশেষ পার্টির মেজাজ। গাটো শহর জুড়ে চলা এই উৎসবের মরসুমে গা ভাসালেন আপামর শহরবাসী। খাওয়া, নাচ, গান আর উল্লাস। সন্ধে থেকেই ভিড় জমতে শুরু করে নিউ মার্কেট-পার্কস্ট্রিট এলাকাতে। রাত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় কাউন ডাউন। 

আরও পড়ুনঃ রাত পোহালেই কল্পতরু, বছরের প্রথম দিন ভক্তদের ভিড় মন্দিরে মন্দিরে

ঘড়ির কাঁটা যতই এগোতে থাকে ততই যেন মানুষের মধ্যে উত্তেজনার পারদ চরতে থাকে। এমনই পরিস্থিতিতে কোনও রকমের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়া কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল কলকাতা পুলিশের পক্ষ থেকে। রাখা হয়েছিল বিশেষ নজর শহরের বড় বড় হোটেল রেস্তোরাগুলোতে। মোতায়ন করা হয়েছিল পাঁচ হাজার অতিরিক্ত পুলিশ। পাঁচটি ওয়াচ টাওয়ারের মাধ্যমে নজর রাখা হচ্ছিল, নজর ছিল কলকাতার অলিতে গলিতেও। 

আরও পড়ুনঃ নতুন বছরে সুখবর, অবশেষে বেতন বাড়তে চলেছে সরকারি কর্মচারীদের

মধ্যে রাতে যখন উত্তাল শহর তখনই শেষ হয় একটা দশক। শুরু আরেক দশকের। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে পথে নেমেই সেলিব্রেশন। আতসবাজিতে ভরে উঠেছিল আকাশ। সেলিব্রেশনের ঘোর কাটতে না কাটতেই নতুন বছরের প্রথম সকাল। বিশেষ পুলিশের নজরদারী, অতিরিক্ত গাড়ি পরিষেবা, মেট্রো পরিষেবা সবই বাড়ানো হয়েছিল এই নতুন বছরের প্রাককালে কোনও রকমের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে।