ফের মাদক পাচারের ঘটনায় তিন জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ।  গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তিন জনকে তারাতলা নেচার পার্কের কাছ থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কোথা থেকে কীভাবে এত পরিমান মাদক জোগাড় করা হয়েছে তার জন্য় ইতিমধ্য়েই তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ধৃতদের দফায় দফায় জেরা করছে পুলিশ। 

আরও পড়ুন, শুক্রবার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস, শুভেচ্ছা জানিয়ে ট্যুইট করলেন মমতা


ফের কলকাতায় উদ্ধার হল নিষিদ্ধ মাদক ইয়াবা ট্যাবলেট। চোরাবাজারে তার দর আড়াই কোটি টাকা। বৃহস্পতিবার রাতে তারাতলা নেচার পার্কের কাছে একটি গাড়ি থেকে পাওয়া গিয়েছে ওই বিপুল পরিমাণ নিষিদ্ধ ট্যাবলেট। গাড়িতে ছিল মনিপুরের দুই কুখ্যাত মাদক পাচারকারী। ধরা পড়েছে তাদের সহযোগী মালদার আরও একজন। ধৃতদের নাম মনিপুরের থৌবালের সৈয়দ আমির হোসেন, ড্রাইভার আতাউর রহমান ও মালদার কালিয়াচকের হানিফ শেখ। সবমিলিয়ে প্রায় ৮ কেজির উপর ইয়াবা উদ্ধার হয়েছে তাদের কাছে থেকে। মিলেছে ৭৪ হাজার ট্যাবলেট। গাড়ির সামনের ও পিছনের দরজায় সেগুলি লুকানো ছিল। শুক্রবারই তাদের আদালতে তোলা হবে। 

আরও পড়ুন, ফের শহরে ব্যাঙ্কের লকার থেকে গায়েব গয়না, তদন্তে কলকাতা পুলিশ

উল্লেখ্য় এর আগেও গত বছর বড়দিনের রাতে পুলিশের হাতে ধরা পড়েছিল মাদক পাচারকারীর দল। পুলিশের চোখে ধুলো দেবার জন্য় তারা মুশুরির ডালের মধ্য়ে প্য়াকেট করে বিপুল পরিমানে মাদক পাচার করছিল। যাদের মূলত লক্ষ্য় ছিল এই উৎসবের মরসুমে কলকাতার বুকে মাদক ছড়িয়ে দিয়ে বিপুল পরিমানে মুনাফা জিতে নেওয়া।  গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রাতে আনন্দপুর থানা এলাকার চৌবাগা ক্যানেল সাইড রোড থেকে পাচারকারীদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ধৃতদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল প্রায় তিন কোটি টাকার হেরোইন ও তিন কোটি টাকার ইয়াবা ট্যাবলেট।