পুলিশকে বিভ্রান্তিকর তথ্য দেওয়ার দিন শেষ। এবার থেকে অনস্পট বয়ান রেকর্ড করবে কলকাতা পুলিশ। বুকে ক্যামেরা থাকায় অভিযুক্তের অপরাধ ধরা যাবে ক্যামেরাতেই। কিছুদিনের মধ্যে বডি ক্য়ামেরা নিয়ে টহল দেবে কলকাতা পুলিশ।

পরিকল্পনাটা করা হয়েছিল দু বছর আগে। গত বছরই ঠিক হয় বডি ক্যামেরা কিনবে কলকাতা পুলিশ। সেই অনুযায়ী শুরু হয় দরপত্রের কাজ। অবশেষে কলকাতা পুলিশের কাছে আসতে চলেছে সেই অত্যাধুনিক বডি ক্যামেরা। হাই রেজলিউশনের এই ক্যামেরার মাধ্যমে অপরাধের জায়গায় হানা দিয়েই অপরাধমূলক কাজকর্মের ছবিতে তুলে রাখতে পারবে পুলিশ। আলাদা করে বয়ান রেকর্ড করতে হবে না। 

অনেক সময় পুলিশি হানায় অত্যধিক বাজে ব্যবহারের অভিযোগ তোলে অভিযুক্তরা। এক্ষেত্রে যা বন্ধ হয়ে যাবে। কারণ বুকে ক্যামেরা নিয়ে অভিযান চালানোয় কী হচ্ছে সেই ছবি ভিডিয়োতে রেকর্ড করা থাকবে। তাই আদালতে অভিযুক্ত নির্দোষ সাজার ভান করলে তা সহজেই ধরা পরে যাবে। লালবাজার সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই কলকাতা পুলিশের ট্রাফিক বিভাগে এসে গেছে এই ক্যামেরা। 

কলকাতা পুলিশের আধিকারিকরা জানান, মূলত বেআইনি পানশালা ও মধুচক্রে হানা দিতে এই ধরনের বডি ক্যামেরা খুব কাজে লাগবে। কারণ বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই পুলিশ ঢুকছে দেখে পালানোর চেষ্টা করে অভিযুক্তরা। তাই বডি ক্যামেরা অন থাকলে সহজেই অভিযুক্তদের সনাক্ত করতে পারবে আদালত। সূত্রের খবর, সুপার এইচডি রেজলিউশনের ক্যামেরা হওয়ায় ছবি ফেটে যাওয়ার বা অভিয়ুক্তকে সনাক্ত করতে অসুবিধা হবে না পুলিশের। এক চার্জেই ৯ঘণ্টা পরিষেবা দেবে এই ক্যামেরা। মোবাইলের মতো রেকর্ডিং করতে একাধিক বোতাম টিপতে হবে না। কেবল একবার স্পর্শ করলেই শুরু হয়ে যাবে রেকর্ডিং।

অপরাধীদের ধরতে থাকবে 'নাইট ভিশন মোড'। ফলে আলো না জ্বালিয়েও রাতে অপরাধীদের ছবি তুলতে পারবে ক্যামেরা। হাল্কা হওয়ায় এই ক্যামেরা ব্য়বহারে ঝক্কি পোহাতে হবে না পুলিশ কর্মীদের। একবার বুকে লাগিয়ে নিলেই কেবল বোতাম টেপার পালা। খুব শীঘ্রই ক্যামেরা নিয়ে কলকাতা পুলিশের প্রশিক্ষণ শুরু হবে। তারপরই বুকে লাগবে 'বডি ক্যামেরা।'