ডিসেম্বর শুরু হলেও শীতের আমেজ এসেছে মাত্র, শীত আসেনি। সকাল বাড়তেই এখনও রাজ্য়ে সূর্যের দাপট তাপমাত্রা বাড়িয়ে দিচ্ছে। কলকাতা শহরেই আদ্রতা কমলেও ঘাম দিচ্ছে শরীরে। তবে সপ্তাহের  শুরুতেই খুশির খবর দিল আবহাওয়া দফতর। আলিপুর হাওয়া অফিস জানিয়েছে, সোমবার  থেকেই তাপমাত্রা কমবে রাজ্য়ের।  

শুধু কলকাতাই নয়,দক্ষিণবঙ্গ সহ সব জেলাতেই দুই থেকে তিন ডিগ্রি তাপমাত্রা কমার সম্ভাবনা রয়েছে । আগামী ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা হবে ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি বেশি। আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২০ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি বেশি । দিনের বেলা আকাশ পরিষ্কার থাকলেও ভোরের দিকে কুয়াশা থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। 

রাত ও ভোরের দিকে শীতের উপলব্ধি পাবে শহর। আগামী কয়েক দিন রাজ্যের সব জেলাতেই আবহাওয়া শুষ্ক থাকবে । তবে,আদ্রতা কমায় বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই কোনও জেলায় ।কলকাতায় গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩০.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি বেশি । সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি বেশি । স্বাভাবিকভাবেই কলকাতা সহ সব জেলায় ২ থেকে ৩ ডিগ্রি তাপমাত্রা কমার খবর শুনে খুশি মহানগরবাসী।

তবে শীত কমার সঙ্গে সঙ্গে শহরের হাওয়ায় ধুলোর মাত্রা বাড়ার আশঙ্কা করছে পরিবেশবিদরা। তাদের আশঙ্কা, সকালে কুয়াশার ফলে বাতাসে ধুলিকনার পরিমাণ আরও বাড়বে। যার জেরে শ্বাস প্রশ্বাসে সমস্যা হতে পারে শহরবাসীর। তবে তা কোনওভাবেই রাজধানীর পরিস্থিতি সৃষ্টি করবে না। কদিন আগেও শহরের প্রাণ ময়দানের পরিবেশও দূষণে ভরে গিয়েছিল। স্বাভাবিকের থেকে ধুলোর পরিমাণ বেড়ে গিয়েছিল বাতাসে। যার জেরে রাসায়নিক ছড়িয়ে সেই ধুলিকনা নষ্টের রাস্তা নিয়েছে রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ। ইতিমধ্য়েই স্প্রে ছিটানোর জন্য গাড়িও প্রস্তুত করেছে পর্ষদ।