শুক্রবার থেকে তালা ঝুলে গেল শহর কলকাতার একাধিক সিনেমাহলে। এমনিতেই বাংলার সিঙ্গেলস্ক্রিন মাল্টিপ্লেক্স হওয়ার পর থেকেই সমস্যার মুখে পড়েছে। প্রাচী, প্রিয়ার মত সিনেমাহলগুলোতে মানুষের যাতায়াত কমছিল। কমছিল টিকিট বিক্রির মাত্রাও। এমনই সময় মরার ওপর খাঁড়ার ঘা লকডাউন। কোনও মতে ধুঁকে ধুঁকে চলতে থাকা এই  এই সিনেমাহল গুলোই এবার বন্ধ হল। বিশাল ক্ষতির মুখ দেখার পরই এই সিদ্ধান্ত। দীর্ঘদিন ধরে কলকাতার বুকে রাজ করা প্রেক্ষাগৃহগুলো তালা বন্ধ করায় এবার সমস্যায় পড়তে হল বহু কর্মীকে। 

আরও পড়ুনঃ NCB-র তলবে এবার ভারতী-হর্ষ, মাদক চক্রে নাম জড়িয়ে বিপাকে দুই কমেডিয়ান

প্রিয়া, মেনকা, প্রাচী, ইন্দিরা, অশোকা, জয়া, বায়োস্কোপ (দুর্গাপুর), ডাকবাংলো (বারাসাত) সিনেমা হলে শনিবার সকাল থেকেই তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার থেকেই একের পর এক প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ হয়ে যেতে থাকে। এতেই এবার মাথায় হাত একাধিক কতৃপক্ষের। অক্টোবর মাস থেকেই খুলেছিল প্রেক্ষাগৃহের দরজা। ১৫ অক্টোবর খুলে গিয়েছিল সিনেমা হলের দরজা। কিন্তু মানুষকে সেভাবে ফেরানো যায়নি প্রেক্ষাগৃহে। 

 

 

এমনই পরিস্থিতিতে বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল বাঘাবাঘা প্রেক্ষাগৃহ, যা ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছিল লকডাউনের আগে। তবে করোনার ধাক্কা তাদের পক্ষে আর নেওয়া সম্ভবপর হয়ে ওঠেনি। যার ফলে বন্ধ হয়ে যেতে হল সিনেমাহলগুলিকে। মাত্র ৪ থেকে ৫ জন দর্শক নিয়ে সিনেমাহল চালানো সম্ভবপর নয়, এমনটাই সাফ জানাচ্ছেন কর্তৃপক্ষরা।