সাধারণের জন্য় না খুললেও জরুরি পরিষেবার কর্মীদের জন্য় খুলতে পারে মেট্রো রেলের পরিষেবা। নবান্নের সঙ্গে মেট্রো রেল কতৃপক্ষের বৈঠক শেষে এমনই আশ্বাস পাওয়া গিয়েছে। এই কথা নিজেই জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়।

১ জুলাই থেকে যত সিট তত যাত্রী নিয়ে মেট্রো চালুর প্রস্তাব দিয়েছিল রাজ্য় সরকার। এ বিষয়ে মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সোমবার কথা হয় রাজ্য়ের। সোমবার মেট্রোর তিন অফিসারের সঙ্গে এক ঘণ্টা বৈঠক করেন স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। বিকেলে সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা মেট্রো রেলকে অনুরোধ করেছিলাম। অফিসাররা জানিয়েছেন, জরুরি পরিষেবার কর্মীদের জন্য তাঁরা মেট্রো চালাতে পারেন। কিন্তু এখনই সাধারণের জন্য মেট্রো চালানো সম্ভব নয়।

তবে আপাতত ১ জুলাই থেকে মুক্তি পাচ্ছে না কলকাতা মেট্রো। রাজ্য় সরকার ও মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষের মধ্য়ে পরিষেবা নিয়ে বৈঠকে কোনও সমাধান সূত্র পাওযা যায়নি। ঠিক হয়েছে এখনই কলকাতা মেট্রোর পরিষেবা দিতে পারবে না কতৃপক্ষ।

নবান্ন সূত্রে খবর, মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ স্বাস্থ্য়বিধি মেনে পরিষেবা দিতে পারলে আপত্তি করত না নবান্ন। এ নিয়ে নিজেই ইচ্ছে প্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। তা নিয়েই সোমবার মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক হয়। যদি তারা এখনই পরিষেবা দিতে পারবে না বলে জানিয়ে দেয় কলকাতা মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ।

তারা জানিয়ে দেয়, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মেট্রো চালানো সম্ভব নয়। এ বিষয়ে রেল মন্ত্রকের সঙ্গে কথা বলতে হবে রাজ্য সরকারকে। কেবল আরপিএফ দিয়ে সামাজিক দূরত্ব মেনে মেট্রো চালানো সম্ভব নয়। আপাতত রেল মন্ত্রকের নির্দেশিকা মেনে ১২ই অগাস্টের আগে চলবে না মেট্রো। সম্প্রতি নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, কলকাতা মেট্রোর সঙ্গে কথা বলছে রাজ্য সরকার। মেট্রোয় যতগুলি আসন ততগুলি আসনে যাত্রী নিয়েই চলাচল শুরু করা যেতে পারে। 

সম্প্রতি ভারতীয় রেলের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়,আগামী ১২ অগস্ট পর্যন্ত সমস্ত রকম পরিষেবা বন্ধ থাকবে। এই সময়ে কেবল শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনগুলি চলবে।  চলতে পারে কিছু স্পেশাল ট্রেন। এমনকী লোকাল ট্রেনও চলবে না ।