দিন কয়েক আগেই রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন তিনি। বাংলার নববর্ষের প্রথম দিনেই রাজভবনে প্রতিনিধি পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করলেন পুর ও নগরোন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। দিলেন মিষ্টিও।

পয়লা নয়, এ যেন ১লা বৈশাখ! করোনা আতঙ্কে এবার নববর্ষেও উৎসবহীন বাংলা। লকডাউনের জেরে ঘরবন্দি হয়ে দিন কাটছে সকলেরই। শুভেচ্ছা বিনিময় চলছে সোশ্যাল মিডিয়াতেই। কিন্তু ঘটনা হল, দিন কয়েক আগে লকডাউন নিয়ে নবান্নে কড়া চিঠি পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। চিঠিতে অভিযোগ করা হয়েছে, রাজাবাজার, তপসিয়া, মেটিয়াবুরুজ-সহ বিভিন্ন জায়গায় লকডাউন মানা হচ্ছে না। এমনকী, বিনামূল্যে রেশন বিলিতেও হস্তক্ষেপ করছেন রাজনৈতিক নেতারা। রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও। ভিডিও বার্তায় সাধারণ মানুষকে সরকারি নির্দেশ মেনে চলার অনুরোধ করেন তিনি। এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার রাজভবনে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর হয়ে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে এলেন পুর ও নগরোয়ন্ননমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।
 

এদিকে মঙ্গলবার আবার ছিল বিআর আম্বেদকরের ১২৯ জন্মদিন। রাজভবনে ভারতের সংবিধান প্রণেতার ছবিতে মালা দিয়ে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। টুইট করে 'রাজ্যের স্বার্থে সংবিধানিক প্রধানের সঙ্গে লকডাউন'-এ ইতি টানার জন্য় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অনুরোধ করেছেন তিনি।