করোনা রুখতে রাজ্য়জুড়ে লকডাউন চলছে। লকডাউনের জেরে অনেকেই রোজগার হারিয়েছে। আর এই করোনা পরিস্থিতিতেই শহরের  প্রায় ৬০ জন দুঃস্থ মানুষের কাছে রান্না করা খাবার পৌঁছে দিল নাকতলা উদয়ন সংঘ। পাশাপাশি শহরের প্রাণ রক্ষার দায়িত্বে এলাকায় দায়িত্বে থাকা সকল ট্রাফিক পুলিশ কর্মীকেই জল, মাস্ক, স্য়ানিটাইজার দেওয়া হয়েছে নাকতলা উদয়ন সংঘের তরফে।





আরও পড়ুন, পার্ক সার্কাসের বেসরকারি হাসপাতালে প্রৌঢ়ের মৃত্য়ু, করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসতেই অভিযোগ তুলল পরিবার

নাকতলা উদয়ন সংঘ-র সাধারণ সম্পাদক অঞ্জন দাশ জানালেন, করোনা মোকাবিলায় তাদের প্রত্য়েক সদস্য়ের সঙ্গেই আলোচনা হয়েছে। সেখানেই কীভাবে করোনা পরিস্থিতিতে অসহায় মানুষদের সাহায্য় করা যায়, তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা চলে। এরপরেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, এলাকার  দুঃস্থ মানুষদের রান্না করা খাবার পৌছে দেওয়া হবে। এর মধ্য়ে এলাকার মানুষিক ভারসাম্য়হীমরাও বাদ পড়েনি। তাঁদের এই বিশাল বড় কর্মকাণ্ডে রয়েছেন নাকতলা উদয়ন সংঘের চেয়ারম্য়ান তথা রাজ্য়ের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্য়ায়, সম্পাদক তথা কাউন্সিলর বাপ্পাদিত্য় দাশগুপ্ত এবং কাউন্সিলর সুস্মিতা দাম। 






আরও পড়ুন, পার্ক সার্কাসের বেসরকারি হাসপাতালে প্রৌঢ়ের মৃত্য়ু, করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসতেই অভিযোগ তুলল পরিবার

অপরদিকে, লকডাউনে এপ্রিলের ফাঁটা গরমে নিজেদের জীবন বিপন্ন করে যারা পুরো শহরটাকে আগলে রাখছেন, সেই সকল  ট্রাফিক  পুলিশকর্মীদের জল, মাস্ক, স্য়ানিটাইজার পৌঁছে দিয়েছে নাকতলা উদয়ন সংঘ।  এরই সঙ্গে পৌরসভার যৌথ উদ্য়োগে চলছে এলাকাকে জীবাণু মুক্তের কাজ। নাকতলা উদয়ন সংঘ-র সাধারণ সম্পাদক অঞ্জন দাশ আরও জানালেন, মুখ্য়মন্ত্রীর রিলিফ ফান্ডে কিছু অর্থ দান করার ভবিষ্য়ত পরিকল্পনাও তাঁদের আছে। 





 

 

এনআরএস-র আরও ৪৩ জন স্বাস্থ্য কর্মীর রিপোর্ট নেগেটিভ, স্বস্তিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

করোনার রোগী সন্দেহে বৃদ্ধকে বেধড়ক মার, স্যালাইনের চ্যানেল করা হাতে দড়ি পড়ালো মানিকতলাবাসী

করোনায় আক্রান্ত এবার কলকাতার ২ ফুটপাথবাসী, হোম কোয়ারেন্টাইনে উদ্ধারকারীরা