কলকাতা বিশ্ববিদ্য়ালয়ে সাম্মানিক ডি' লিট নিয়ে চলে এলেন নবান্নে মুখ্য়মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে। মাকে নিয়ে মমতার সঙ্গে আলাপচারিতায় বসলেন নোবেলজয়ী অভিজিৎ বন্দ্য়োপাধ্যায়। মুখ্য়মন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে জানিয়ে গেলেন, রাজ্য় সরকারের সঙ্গে কাজ করতে উৎসাহী তিনি। আপাতত রাজ্য়ের বিভিন্ন প্রকল্প নিয়ে পড়াশোনা করতে চান। তারপরই কোনও সিদ্ধান্তে আসবেন।

বিকেল ৪ টে বাজতেই সোজা নবান্নে সোজা নবান্নে ঢুকলেন। তাঁকে  স্বাগত জানাতে এগিয়ে এলেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। পরে মুখ্য়মন্ত্রীর সঙ্গে মাকে সঙ্গে নিয়েই ফটোগ্রাফারদের মন রাখলেন নোবলজয়ী।  সেখানে বসেই কথা হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে। পরে মুখ্য়মন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে অভিজিৎবাবু বলেন,  আমি এসেছিলাম শুনতে, জানতে। এখানে কী কী ইন্টারেস্টিং স্কিম আছে তা জানব, সেগুলি নিয়ে পড়াশোনা করব। বরাবরাই আমি কিছু না টাইপের কথা বলেই চালিয়েছি। এবারও আগে জানব , শিখব। তারপর কিছু বলতে পারব।

তবে সুযোগ পেলে যে তিনি রাজ্য সরকারের সঙ্গে কাজ করতে ইচ্ছুক তা জানাতে ভোলেননি অভিজিৎবাবু। তবে এতকিছুর মধ্য়েও এদিন এনআরসি প্রসঙ্গে এড়িয়ে যান নোবেল জয়ী। অভিজিৎ বন্দ্য়োপাধ্য়ায় নোবেল পাওয়ার ঘোষণা শুনেই তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন মুখ্য়মন্ত্রী। এমনকী রাজ্য সরকারের তরফ থেকে নির্মলা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে ফুল, মিষ্টি ও শুভেচ্ছাবার্তা তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন কলকাতা বিশ্ববিদ্য়ালয়ের সমাবর্তনে আসার কথা থাকলেও তা বাতিল করেন মুখ্যমন্ত্রীষ শেষে নবান্নে মুখ্য়মন্ত্রী সঙ্গে সাক্ষাৎ সারেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ।