চার্নক, পিয়ারলেসের পর এবার করোনার থাবায়  বন্ধ পার্ক সার্কাসের শিশু হাসপাতাল। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এক সঙ্গে ১২জন নার্সের করোনা পজিটিভ আসায় অনির্দিষ্টকালের জন্য হাসপাতাল বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা। 

সূত্রের খবর, পার্ক সার্কাসের শিশু হাসপাতাল ‘ইনস্টিটিউট অফ চাইল্ড হেল্থ’স্যানিটাইজ় করার পরই ফের শুরু হবে চিকিৎসা। তবে , যারা এখনও ভর্তি আছেন, তাদের চিকিৎসা চলবে হাসপাতালে। ওই ১২ জন নার্সকে ভর্তি করা হয়েছে রাজারহাটের চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালে। যদিও স্বাস্থ্যভবন সূত্রে এ বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি এখনও।

জানা গিয়েছে, কদিন আগে হাসপাতালের নিও নেটাল ইউনিটের এক নার্সের কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসে। ওই নার্সের থেকেই বাকিদের সংক্রমণ হয়েছে বলে ধারণা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের। হাসপাতালের এক স্বাস্থ্য়কর্মী জানিয়েছেন, কিছুদিন আগেই এই ঘটনা সামনে আসতেই মোট ১৭ জনের নমুনা পরীক্ষার  জন্য় পাঠানো হয়। দেখা গিয়েছে যার মধ্য়ে ১২ জনেরই কোভিড পজিটিভ  এসেছে। এরপর আর দেরি করেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
 
মনে করা হচ্ছে হাসপাতালের আরও অনেক সদস্যই করোনায় আক্রান্ত। অনবরত পরীক্ষা হলে বহু চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীর পজিটিভ ফল আসতে পারে। ইতিমধ্য়েই ওই নার্সদের সংস্পর্শে আসা ব্য়ক্তিদের তালিকা তৈরি হচ্ছে। এদের সবাইকে নমুনা পরীক্ষার পাশাপাশি কোয়ারান্টাইনে পাঠানো হবে। 

গতকাল চিকিৎসা পরিষেবা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে পিয়ারলেস হাসপাতাল। সোমবার বিকেলে হাসপাতালের তরফে এক বিবৃতিতে এ কথা ঘোষণা করা হয়েছে, কোভিড আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসা করতে গিয়ে হাসপাতালের অনেকেই আক্রান্ত হয়েছেন।  ফলে ঝুঁকি না নিয়ে আপাতত হাসপাতাল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। একই ঘটনা ঘটে চার্নক হাসপাতালের ক্ষেত্রেও।