Asianet News BanglaAsianet News Bangla

হেফাজতে নিতে পারবে না সিবিআই, কোন শর্তে জামিন রাজীবকে

  • পুজোর আগে কলকাতা হাইকোর্ট থেকে স্বস্তি পেলেন রাজীব কুমার।
  • কয়েকটি শর্তে রাজীবের আগাম জামিন মঞ্জুর করেছে আদালত।
  • কোন শর্তে রাজীবকে আগাম জামিন দিল আদালত
On which ground Rajiv Kumar gets bail
Author
Kolkata, First Published Oct 1, 2019, 3:30 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

পুজোর আগে কলকাতা হাইকোর্ট  থেকে স্বস্তি পেলেন রাজীব কুমার। কয়েকটি শর্তে রাজীবের আগাম জামিন মঞ্জুর করেছে আদালত। অন্যদিকে রাজীব কুমারের কাছে হাইকোর্টে 'মুখ পুড়েছে' সিবিআই-এর। 

কলকাতা ছাড়িয়ে ভিন রাজ্যে রাজীবের সন্ধানে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার তল্লাশি পর্বেও তেমন কোনও লাভ হয়নি। হাইকোর্টের বিচারপতি শহিদুল্লা মুন্সি ও বিচারপতি শুভাশিস দাশগুপ্তর ডিভিশন বেঞ্চ রাজ্যের বর্তমান গোয়েন্দা প্রধান রাজীব কুমারের যুক্তিকেই মান্যতা দিল। রাজীব কুমারের আইনজীবী প্রথম থেকে দাবি করে এসেছেন, তিনি সিবিআই তদন্তে সহযোগিতা করেছেন। এখনও তদন্তে সহযোগিতা করতে চান। এদিন ডিভিশন বেঞ্চও পর্যবেক্ষণে জানায়, রাজীব শুরু থেকে তদন্তে সহযোগিতা করেছেন। তাই সিবিআই হেফাজতে নিয়ে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের কোনও প্রয়োজন নেই। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করলে যেতেই হবে। তবে ওই আইপিএসকে ৪৮ ঘণ্টা আগে তলবি নোটিশ পাঠাতে হবে। এমনকী আগাম জামিন দিতে গিয়ে ডিভিশন বেঞ্চ এও জানিয়েছে, সিবিআই তাঁকে গ্রেফতার করলেও সঙ্গে সঙ্গে জামিন পেয়ে যাবেন তিনি। হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের এদিনের রায় সব মিলিয়ে রাজীব কুমারের কাছে প্রত্যাশার চেয়েও যেন বড় উপহার।  

আদালতে আগাম জামিনের শর্ত অনুযায়ী, ৫০ হাজার টাকার দুটি ব্যক্তিগত বন্ড দিতে হবে রাজীব কুমারকে। রাজীবের আগাম জামিনের জন্য দুজন জামিনদার থাকতে হবে। তবে যেকেউ জামিনদার হতে পারবেন না রাজীবের। রাজীবের জামিনদার হতে গেলে তাঁকে স্থানীয় এবং কলকাতায় সম্পত্তি থাকতে হবে। এখানেই শেষ নয়। আদালত জানিয়েছে, সিবিআই রাজীব কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নোটিশ দিতে চাইলে ৪৮ ঘণ্টা আগে তা পাঠাতে হবে। সিবিআই ডাকলে যেতে হবে তাঁকে।

এদিন আদালতে রাজীব কুমারের আইনজীবী বলেন, তাঁর মক্কেলের কাছ থেকে সিবিআই যা কিছু তথ্য চেয়েছে সবই জানিয়েছেন কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার। তা সত্ত্বেও রাজীবের মতো একজন রেপুটেড আইপিএসকে হেফাজতে নিতে চাইছে সিবিআই। যদি রাজীবের আইনজীবীর এই বক্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করে সিবিআই। তারা বলে, রাজীব কুমারকে মোট ৮ বার নোটিশ দিয়ে তলব করা হয়েছে, কিন্তু তিনি ২ বার এসেছেন। তদন্তে সহযোগিতা করেননি৷ এছাড়া সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে শিলং -এ গোয়েন্দারা তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করলেও বহু প্রশ্নের উত্তর তিনি ঠিকভাবে দেননি। তাই সারদা কেলেঙ্কারির তদন্ত এগিয়ে নিয়ে যেতে তাঁকে হেফাজতে নেবার দরকার রয়েছে।  

কিন্তু ডিভিশন বেঞ্চ রাজীব কুমারের আইনজীবীর যুক্তিকেই মান্যতা দিয়ে এদিন রায় দেয়। তবে কোর্টের রায়ের পরই সিবিআই পরবর্তী আইনি পরামর্শ সারছেন তাঁদের আইনজীবীদের সঙ্গে৷ ডিভিশন বেঞ্চের রায়ের বিরুদ্ধে  সুপ্রিম কোর্টে  যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে সূত্রের খবর৷   

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios