শুক্রবার দুপুর থেকে টানা বৃষ্টি শুরু হয়েছে। অবিরাম ভারী বৃষ্টির জেরে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু এলাকা জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। এর ফলে বৃষ্টির ঘাটতি বেশ খানিকটা কমেছে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।  কিন্তু এর মধ্যেই জনজীবন ব্যাহত হয়েছে অনেকটাই। 

জানা যাচ্ছে বঙ্গোপসাগর অভিমুখী সুন্দরবনের নদীগুলির জলস্তর বৃদ্ধি হয়েছে। ফলে বেশকিছু গ্রাম ইতিমধ্যেই জলমগ্ন হয়ে গিয়েছে। আতঙ্কিত স্থানীয় বাসিন্দারাও।

আরও পড়ুনঃ জলমগ্ন কলকাতা! আগামী ৪৮ ঘণ্টা কেমন থাকবে আবহাওয়া

গতকাল দুপুর থেকেই অবিরাম বৃষ্টির ফলে উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বারাকপুর,বারাসাত, বনগাঁ ও বসিরহাট ও তার আশপাশের অঞ্চল-সহ ইছামতী তীরবর্তী টাকি ও বাদুড়িয়া পৌরসভার বেশকিছু ওয়ার্ডে জলবন্দি হয়ে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে সুন্দরবন অঞ্চলের সন্দেশখালি, হিঙ্গলগঞ্জ, হাসনাবাদের বিস্তীর্ণ এলাকায়। 

বৃষ্টির ফলে যেভাবে নদীগুলির জলস্তর বাড়ছে তার জন্য সিঁদুরে মেঘ দেখছেন গ্রামের মানুষ। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, এখনই বৃষ্টি থামছে না। রবিবার পর্যন্ত বৃষ্টি চলবে। হাওয়া অফিস জানাচ্ছে,  এই মরশুমে এটাই সবচেয়ে ভারী বৃষ্টি। তাই অনেকটাই ঘাটতি কমবে এই বৃষ্টির জেরে।