সপ্তমীর সকালে ঠাকুর দেখায় বাদ সাধছে বৃষ্টি। আবহাওয়া অফিস বলছে,আগামী তিন ঘণ্টা শহরে জুড়ে দাপিয়ে বেড়াবে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি। ফলে সকালে মণ্ডপ দেখার পরিকল্পনা  বদলাতে হবে বিকেলে।

গত দুদিন ধরে চোখ রাঙিয়েছে রোদ। সূর্যের অতি কিরণে নাজেহাল অবস্থা হয়েছে শহরবাসীর। সঙ্গে সঙ্গী হয়েছে মাত্রাতিরিক্ত ঘাম। প্যাচ প্যাচে গরমের থেকে বদলেছে আবহাওয়া। কিন্তু শনিবার সাকাল ৯টার পর থেকেই শহরের বেশিরভাগ জায়গায় হতে চলেছে বৃষ্টি। এমনই পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। তবে সপ্তমীর দিনে আশার বাণী একটাই, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই বৃষ্টি দীর্ঘস্থায়ী হবে না। তবে বাজ পড়তে পারে কলকাতা সহ দক্ষিণ ২৪ পরগনার বেশ কিছু অঞ্চলে। সঙ্গে থাকবে ভয়াল বৃষ্টি। 

আবহাওয়া বলছে, ইতিমধ্যেই শহরের বেশকিছু জায়গায় শুরু হয়েছে বৃষ্টি। স্বল্প সময়ের বৃষ্টিতে গরম না কমলেও রাস্তা ভিজেছে। বৃষ্টির মধ্যেই বেশকিছু মণ্ডপে ছাতা মাথায় দিয়ে চলেছে ঠাকুর দেখা। রাতের শহরে বেরোনোর থেকে এখন অনেকেই সকাল সকাল ঠাকুর দেখার পক্ষপাতী। তাদের ক্ষেত্রে আশঙ্কার কারণ এই বৃষ্টি। তবে হাওয়া অফিসল বলছে, শুধু তিন ঘণ্টাই নয় আজ সারাদিনই মেঘাচ্ছ্ন্ন থাকতে পারে আকাশ। কিছু সময়ের জন্য রোদের দেখা মিললেও তা হবে ক্ষণস্থায়ী।