থানার মধ্যে ঢুকেই পুলিশের উপর চড়াও হল ধৃতের বাড়ির লোক এবং পরিচিতরা। রবিবার রাতে এই ঘটনাই ঘটল টালিগঞ্জ থানায়। থানার মধ্যে ঢুকে রীতিমতো পুলিশের সঙ্গে ধাক্কাধাক্কি করল মত্ত অবস্থায় বাইক চালানোয় অভিযুক্ত যুবকের পরিচিতরা। মারধর করা হল এক পুলিশকর্মীকেও। পাল্টা ধৃত যুবক এবং তাঁর পরিবারের সদস্যদেরও পুলিশ মারধর করেছে বলে অভিযোগ কিছু স্থানীয় বাসিন্দার। 

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার রাতের শহরে ফের আক্রান্ত হয় পুলিশ। রবিবার রাত ১০টা নাগাদ সাদার্ন অ্যাভিনিউ এলাকায় এক যুবক মদ্যপ অবস্থায় বাইকে চেপে যাচ্ছিল। সেই সময় কর্তব্যরত পুলিশ তাঁকে আটক করে। এর পরই ওই মদ্যপ যুবক পুলিশকে উদ্দেশ করে গালিগালাজ শুরু করে। কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীরা ওই যুবককে আটক করে টালিগঞ্জ থানায় নিয়ে আসে। 

এই খবর জানতে পেরেই ধৃতের পরিবারের সদস্যরা থানায় চড়াও হয়। সঙ্গে থানায় ভিড় করেন এলাকার আরও বেশ কিছু বাসিন্দা। থানার সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তাঁরা। এমন কী, থানা লক্ষ্য করে ইট, পাথরও ছোড়া হয় বলে অভিযোগ।

বিক্ষোভকারীদের মধ্যে কয়েকজন থানায় ঢুকে গিয়ে টেবিল চাপড়ে পুলিশকে শাসায় বলেও অভিযোগ। বাধা দিতে গেলে আক্রান্ত হন এক কনস্টেবল। তাঁকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। অভিযোগ থানায় উপস্থিত মহিলা পুলিশকর্মীদেরও আঘাত করা হয়। হামলাকারীদের মধ্যে বেশ কিছু মহিলা থাকায় আরও বিপাকে পড়ে পুলিশ।  অভিযুক্তকে ছেড়ে দেওয়ার দাবি করতে থাকে তার পরিবারের সদস্যরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে টালিগঞ্জ থানায় বিশাল সংখ্যক পুলিশবাহিনী মোতায়েন করা হয়। এর পরেই ধীরে ধীরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

যদিও যুবকের পরিবারের পাল্টা অভিযোগ, কর্তব্যরত পুলিশকর্মীরা মত্ত অবস্থায় তাঁদেরকেও মারধর করেন। পরে মাঝরাতে ওই যুবককে ছেড়ে দেওয়া হয়। অন্যদিকে টালিগঞ্জ থানার পুলিশের বিরুদ্ধেই অভিযোগ দায়ের করেছেন যুবকের পরিবারের সদস্যরা। পুলিশও একটি স্বতোঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে।