জেলা কিংবা মফঃস্বল নয়, এবার খাস কলকাতাতেই মিলল অস্ত্র কারখানার হদিস।  নাদিয়ালে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র উদ্ধার করল পুলিশ।  একজন ধরাও পড়েছে। 

জানা গিয়েছে, নাদিয়ালের ওয়াপসিগঞ্জ এলাকায় একটি একতলা বাড়ি ভাড়া নিয়ে চলছিল অস্ত্র কারখানা। শুধু তাই নয়, অস্ত্র তৈরির জন্য লোক আনা হয়েছিল বিহারের মুঙ্গের থেকে।  সোমবার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে ওই কারখানা থেকে বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র ও অস্ত্র তৈরি সরঞ্জাম উদ্ধার করল পুলিশ। গ্রেফতার করা হয়েছে একজনকে। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, ধৃতের নাম আব্দুল কায়ুম ওরফে মুন্না। বিহারের মুঙ্গের-এর বাসিন্দা সে। ওই এলাকাতেই একটি বাড়িতে ভাড়া নিয়ে থাকত মুন্না। তবে মুন্না একা নয়, ওই অস্ত্র কারখানায় আরও পাঁচ-ছয় শ্রমিক কাজ করত। তারা সকলেই পালিয়েছে,গা-ঢাকা দিয়েছে বাড়ির মালিকও। তাদের সন্ধানে তল্লাশিতে নেমেছে পুলিশ।   

আরও পড়ুন: বরফ ভর্তি বাক্সে বৃদ্ধের দেহ, রিজেন্ট কলোনিতে গ্রেফতার মৃতের শ্য়ালক

কিন্তু খাস কলকাতায় বাড়ি ভাড়া নিয়ে কে বা কারা অস্ত্র কারখানা চালাত? কোথায়ই বা পাঠানো হত অস্ত্র? তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, মুঙ্গের থেকে অস্ত্র বানানো শিখে কলকাতার নাদিয়ালে কারখানা খুলেছিল মুন্নাই। তাকে জেরা করেই চক্রের বাকিদের সন্ধান পেতে চাইছেন তদন্তকারীরা। এই অস্ত্র কারখানার সঙ্গে জঙ্গিদের কোনও যোগসূত্র আছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আরও পড়ুন;জাঁকিয়ে শীত কলকাতায়, ফের বৃষ্টির সম্ভাবনা

উল্লেখ্য, কয়েক মাস আগে কলকাতার স্ট্র্যান্ড রোডে শুল্ক দপ্তরের কাছে বেআইনি অস্ত্র কারখানার হদিশ পায় পুলিশ। সেই ঘটনায় গ্রেফতার  করা তিনজনকেও। তারাও বিহারের মুঙ্গের-এর বাসিন্দা ছিল বলে জানা গিয়েছে।