টালা ব্রিজ দিয়ে যান চলাচল পুরো বন্ধ। এমনকি টালা ব্রিজ দিয়ে হাঁটাও নিষেধ। এদিকে এরই মধ্যে আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে মাধ্যমিক পরীক্ষা। পড়ুয়াদের সময়ে পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছতে যাতে কোনও সমস্যা না হয়, সে জন্য টালা ব্রিজের আশপাশের রাস্তায় বাড়তি নজরদারি চালাবেন ট্র্যাফিক পুলিশের কর্তারা।

আরও পড়ুন, কোমার প্রথম ধাপে ঋষভ-দিব্যাংশু, চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছে পুলকার দুর্ঘটনায় জখম শিশুরা

 প্রসঙ্গত, টালা ব্রিজ ও সংলগ্ন এলাকার আশপাশে মাধ্যমিক পরীক্ষার ১৭টি কেন্দ্র রয়েছে। লালবাজার জানাচ্ছে, সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে কন্ট্রোল রুম থেকেও নজরদারি চলবে। কোনও পরীক্ষার্থী বা পরীক্ষার্থীকে আনা-নেওয়ার গাড়ি যানজটে আটকে পড়লে দ্রুত পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করবে পুলিশই। ডিসি (ট্র্যাফিক) রূপেশ কুমার বলেন, 'কোনও পরীক্ষার্থী সমস্যায় পড়লে ১০০ ডায়ালে ফোন করতে পারে। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে।'ট্র্যাফিক পুলিশ সূত্রে  জানানো হয়েছে, রাস্তাঘাটে অসুবিধায় পড়লে পরীক্ষার্থী বা তাদের অভিভাবকেরা ১০৭৩, ৯৮৩৬৯-৮৪৮১৪, ২২৫০-৫০৯৬, ২২১৪-৩৬১৪ নম্বরে যোগাযোগ করতে পারেন।  

আরও পড়ুন, কনস্টেবলের পরীক্ষা দিতে এসে ধৃত ভুয়ো পরীক্ষার্থী, মোবাইল নিয়ে এসে গ্রেফতার আরও ১

সূত্রের খবর, সংশ্লিষ্ট সব থানা ও ট্র্যাফিক গার্ডকে বলে দেওয়া হয়েছে, কোনও জায়গায় পরীক্ষার্থীরা আটকে পড়লে সংশ্লিষ্ট পুলিশ অফিসার বা কর্মীকেই তাঁর গাড়ি বা বাইকে পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছে দিতে হবে পড়ুয়াকে। রাস্তার মোড়ে মোড়ে বাড়তি সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। রাস্তার কোনও মোড়েই যাতে বেশিক্ষণ গাড়ি যানজটে না-দাঁড়িয়ে থাকে, তা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে পুলিশকে।