এবার থেকে গ্রিন জোনে সোমবার থেকেই চলবে বেসরকারি বাস। বুধবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে বাস চললেও ২০ জনের বেশি যাত্রী নেওয়া যাবে না বলে জানিয়েছে রাজ্য় সরকার। এমনকী জেলার মধ্য়েই সীমাবদ্ধ রাখতে হবে এই বাস পরিষেবা। পরিস্থিতি খারাপ হলে বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে  এই পরিষেবা। এমনই জানিয়েছেন মুখ্য়মন্ত্রী।

রাজ্য়ে ৭০০ ছাড়াল করোনা আক্রান্ত, বলছে কেন্দ্রের রিপোর্ট.

আপাতত সরকারি নিয়ম মেনেই চালাতে হবে বাস পরিষেবা। যাত্রী ও চালক খালাসিদের মাস্ক পরে সামাজিক দূরত্ব মেনে বাসে যাতায়াত করা যাবে। পরিসংখ্য়ান বলছে, সরকারি বাসগুলোয় মোট ৬০টি আসন থাকে। নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, আপাতত ২০ জনের বেশি উঠতে পারবেন না বাসে। তিন জনের সিটে এক জন করে বসবেন, দূরত্ব বজায় থাকে। একটি সিটে জানলার ধারে এক জন বসলে, পেছনের সিটে অন্য জন বসবেন কোণাকুণি, বাইরের দিকের সিটে। 

সোমবার থেকে খোলা থাকবে পাড়ার সব ছোট দোকান, বুধবার নবান্নে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী.

এদিন মুখ্য়মন্ত্রী জানিয়েছেন, লকডাউনের জন্য় বেসরকারি বাস মালিকদের বাস বন্ধ রাখতে হয়েছে. তাদের বিপদে পড়েছে মালিক সহ বাস পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা। তাদের কথা চিন্তা করেই গ্রিন জোনে বাস চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য়ের মন্ত্রিসভা। এই বাস পরিষেবা চালানোর ক্ষেত্র ডিএম, এসপিদের অনুমতি নিয়েই তবে চালানো যাবে পরিষেবা। কোথাও সরকারি নিয়মের লঙ্ঘন দেখলেই তা বন্ধ করে দেওয়া হবে। এমনকী নিয়ম  করে স্যানিটাইজ করতে হবে বাসগুলি।